বানেশ্বরে একরাতে ৯টি দোকানে চুরি

পুঠিয়া প্রতিনিধি: সাটার ভাজ করে বিকাশ দোকানসহ এক রাতে ৯ টি দোকানে চুরির ঘটনা ঘটেছে। রবিবার ভোর ৪ টার দিকে রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়কের পুঠিয়ার বানেশ্বর ট্রাফিক মোড় সংলগ্নে আব্দুল লতিফ সুপার মার্কেটে এ চুরির ঘটনা ঘটে।
ব্যবসায়ীরা জানায়, চুরি করার সময় চোরের সংঘবদ্ধ দলের পাহারায় দোকানের সাটার ভাঁজ করে একজন ভিতরে প্রবেশ করে ৯টি দোকান থেকে ২টা মোবাইল ফোন, নগদ প্রায় আড়াই লক্ষ টাকা নিয়ে যায়। তবে নগদ টাকা ছাড়া অন্য কোন মালামাল চুরি হয়নি বলে দোকান মালিকগণ জানিয়েছেন।
চুরি যাওয়া দোকানগুলো হলো, আফজাল হোসেনর ঢাকা স্টোর (৯০হাজার টাকা), রানা টেলিকম (৮হাজার ২শত), সজিবের ইস্মাট কসমেটিকস (১১হাজার), সিয়ামের লাম ইয়া কসমেটিকস (১১হাজার), সবুজের নগদ, বিকাশের সিটি কসমেটিক (এক লাখ), বারির জুইমনি কসমেটিক (৯ হাজার), আনিস আলীর বুলু বার্ড (১৪হাজার ৫০০) এবং শান্ত হোসেনের মিরাক্কেলের দোকানের সাটার ভ্যাজ করে ভিতরে ঢুকে।
এ দোকানে কোন টাকা না থাকায়, কিছু না নিয়ে বের হয়ে যায়। মার্কেটের বিভিন্ন স্থানে সিসি ক্যামেরা থাকলেও ভিতরে একজন মানকি টুপি পরে চুরি করার দৃশ্য দেখা যায়। চুরি করার সময় সিসি ক্যামেরা ঘুরিয়ে দেওয়া হয়, যার করণে বাকিদের দেখা যায়নি।
একসঙ্গে এতগুলো দোকান চুরি হলো তখন ডিউটিরত নাইটগার্ড কি করল? এমন প্রশ্নের জবাবে বানেশ্বর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি জুবায়ের হোসেন বলেন, আমার বাজারের নাইট গার্ড ভালো ডিউটি করে, কিন্ত এই লতিফ মার্কেটে সমানে থেকে সাটার নামিয়ে দেওয়ার করণে ঘিরে থাকে। যার কারণে বাইর থেকে ভিতরে কিছু দেখা যায় না। ফুটেজ দেখে মনে হলো ভোর বেলায় পেছনের দিক থেকে ঢুকে এ চুরির ঘটনা ঘটেছে।
পুঠিয়া থানার ইনচার্জ সাইদুর রহমান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি ও সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। আসামিদের সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। চোর চক্রকে গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে।


প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪ | সময়: ৭:০২ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর