সর্বশেষ সংবাদ :

মান্দায় ছাত্রলীগের নেতা লাঞ্চিত হয়নি দাবী উপজেলা চেয়ারম্যানের

মান্দা প্রতিনিধি: নওগাঁর মান্দায় উপজেলা চেয়ারম্যানের হাতে এক ছাত্রলীগ নেতাকে লাঞ্চিত করার অভিযোগ নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১১টায় মান্দা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমদাদুল হক নিজ কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন করেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে এমদাদুল হক বলেন, গত দুই-তিন দিন ধরে বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও পত্রিকায় তাঁকে ও তাঁর মেয়েকে জড়িয়ে ‘মান্দা উপজেলা চেয়ারম্যানের হাতে লাঞ্চিত ছাত্রলীগ নেতা’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। সংবাদে যেসব তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে তা মনগড়া, কাল্পনিক ও ভিত্তিহীন। তাঁকে রাজনৈতিকভাবে হেয় করার জন্য এসব মিথ্যা তথ্য ছড়ানো হচ্ছে।
তিনি দাবি করেন, ‘গত ১৩ জুন মান্দার পিআইও দপ্তরে ছাত্রলীগ পরিচয় দানকারী জামাল উদ্দিন নামের কারও সঙ্গে আমার দেখা কিংবা কথা হয়নি। এ কারনে তাঁকে সেখানে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করার কোনো প্রশ্নই আসে না। এছাড়া উপজেলার মজিদপুর ফাজিল মাদ্রাসায় জামাল উদ্দিন নামের ওই ব্যক্তিকে কম্পিউটার অপারেটর পদে নিয়োগ দেওয়ার কথা বলে টাকা নেওয়ার যে অভিযোগ করা হয়েছে, সেটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।’
উপজেলা চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘আমি ওই প্রতিষ্ঠানে ২০২১ সাল পর্যন্ত ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতির দায়িত্বে ছিলাম। আমি দায়িত্বে থাকা অবস্থায় ওই প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার অপারেটর পদে কোনো নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়নি। কাজেই জামাল উদ্দিন নামের ব্যক্তির কাছ থেকে ওই পদে নিয়োগ দেওয়ার নাম করে টাকা নেওয়ার কোনো প্রশ্নই আসে না।’
‘বর্তমান ওই প্রতিষ্ঠানে সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন আমার মেয়ে ও মান্দা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবা সিদ্দিকা। শুনেছি সম্প্রতি ওই প্রতিষ্ঠানে কিছু পদে জনবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়নি। মাদ্রাসা ও নিয়োগ বোর্ড কাকে কোন পদে নিয়োগ দেবেন এটি সম্পূর্ণ তাদের বিষয়। এখানে আমার কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই।’
তিনি অভিযোগ করেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমার বিরুদ্ধে বিভিন্নভাবে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র করে আসছে নিজ সংগঠন আওয়ামী লীগের সংগঠন পরিপন্থী কাজে জড়িত কতিপয় ব্যক্তি। এটিও তারই একটি অংশ। আমাকে রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে ওই মহলটি এসব অপপ্রচারে আবারও লিপ্ত হয়েছে।’
সংবাদ সম্মেলনে এমদাদুল হকের মেয়ে ও মজিদপুর ফাজিল মাদ্রাসার ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মাহবুবা সিদ্দিকা উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রতিষ্ঠানের জন্য কিছু জনবল নিয়োগের জন্য সম্প্রতি বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে। এখনও সেই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়নি। এ অবস্থায় নিয়োগ বাণিজ্যের যে অভিযোগ করা হয়েছে সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট।’


প্রকাশিত: জুন ১৭, ২০২৩ | সময়: ৪:৩৩ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ