রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপারের পক্ষ থেকে বাঘায় ঈদ সামগ্রী বিতরণ

নুরুজ্জামান,বাঘা : মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য,একটু সহানুভূতি কি মানুষ পেতে পারেনা। মানবতা বাদি কন্ঠ শিল্পী ভুপেন হাজারিকার গাওয়া এই গানটি বিবিসির শ্রোতা জরিপে সর্বকালের প্রথম ১০টি জনপ্রিয় গানের মধ্যে একটি। তাঁর এই গানকে বুকে ধারণ করে এখনও অনেক মানুষ রয়েছেন যারা মানুষের কল্যানে এগিয়ে আসেন। তাদের মধ্যে অন্যতম রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন, বিপিএম(বার)।

তিনি ঈদের আনন্দ ভাগা-ভাগি করতে মঙ্গলবার বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি)সাজ্জাদ হোসেনের মাধ্যমে অত্র উপজেলার শতাধিক হতদরিদ্র মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী হিসাবে লাচ্চা, সেমাই, চিনি, দুধ এবং পোলাও এর চাল বিতরণ করেন। তাঁর এই উপহার সামগ্রী বিতরণকে ইতিবাচক হিসাবে মন্তব্য করেছেন সুশীল সমাজের লোকজন। অনেকেই তাঁকে মানবিক পুলিশ সুপার মন্তব্য করে বলেন, এর আগেও রাজশাহীতে অনেক পুলিশ সুপার এসেছেন । কিন্ত তাঁদের মাঝে এ রকম সহানুভূতি লক্ষ্য করিনি।

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন, পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিনে কেউ যেন আনন্দ থেকে বঞ্চিত না হয় এ কথা চিন্তা করে সমাজের বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষকে অনেকই অনেক কিছু উপহার দিচ্ছেন। এ দিক থেকে আমাদের পুলিশ সুপার মহাদ্বয় জনাব মাসুদ স্যারের তুলনা হয়না। তিনি গত বছরও ঈদকে সামনে রেখে পবিত্র রমজান মাসে বাঘা উপজেলা সহ জেলার সকল থানার অসচ্ছল এবং হতদরিদ্রদের মাঝে থানা পুলিশের মাধ্যমে ঈদ সামগ্রী পৌছে দেন। তিনি বলেন, আমাদের পুলিশ সুপার অসাধারণ মানবিক ,কর্মদক্ষতা ,সততা ও ন্যায় পরায়নতার একজন মুক্ত প্রতীক এবং বাংলাদেশ পুলিশের আয়কন।

এদিকে ঈদ সামগ্রী উপহার পাওয়া বাঘা পৌর সভার উত্তর মিলিক বাঘা গ্রামের সাইদুল ইসলাম (৪০) এবং চক নারায়নপুর গ্রামের আনেরা বেগম(৫০) বলেন, আমরা ঈদ সামগ্রী হিসাবে কোন মহল থেকেই এখন পর্যন্ত কিছু পায়নি। থানার ওসি সাহেবের মাধ্যমে এসপি স্যারের যে উপহার পেলাম এটিই প্রথম পাওয়া। তারা বলেন, এই জেলার এসপি সত্যিকার অর্থে একজন ভালো মানুষ। তাঁর এই মহৎ উদ্যোগকে আমরা সাধুবাদ জানায় ।


প্রকাশিত: এপ্রিল ২৭, ২০২২ | সময়: ৬:২৩ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine

আরও খবর