বাংলাদেশ খুব, খুব ভালো খেলেছে

স্পোর্টস ডেস্ক: দেশের মাটিতে টেস্টে নিউ জিল্যান্ডের তৃতীয় বল নেওয়ার ঘটনা গত কয়েক বছরে বেশ বিরল। সবশেষ ১০ বছরে মাত্র একবার সফরকারী কোনো দল কিউইদের দুবার বল বদল করতে বাধ্য করেছে। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপাধারীদের এবার সেই পথে হাঁটতে বাধ্য করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। দুর্দান্ত এই ব্যাটিংয়ের জন্য সফরকারীরা পেলেন প্রতিপক্ষের পেসার ট্রেন্ট বোল্টের প্রশংসা।
মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা শেষে বাংলাদেশের রান ৬ উইকেটে ৪০১। প্রথম ইনিংসে ৩২৮ রান করা নিউ জিল্যান্ডের চেয়ে তারা ৭৩ রানে এগিয়ে। তৃতীয় দিন তিন উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে আরও এগিয়ে যেতে দেননি বোল্ট। উইকেট কামড়ে পড়ে থাকা মুশফিকুর রহিমকে বোল্ড করার পর বাঁহাতি এই পেসার থামান সেঞ্চুরির পথে এগিয়ে যাওয়া মুমিনুল হক ও লিটন দাসকে। দিনের খেলা শেষে সোমবার সংবাদ সম্মেলনে বোল্ট বলেন, এই ম্যাচে বাংলাদেশ খেলছে সত্িযকারের টেস্ট ক্রিকেট।
“বাংলাদেশ খুব, খুব ভালো খেলেছে। দারুণ দৃঢ়তায় এখন পর্যন্ত ব্যবধান গড়ে দিয়েছে ওরাই। আমাদের একের পর এক স্পেল করে যেতে বাধ্য করেছে। এটাই আসলে টেস্ট ক্রিকেট। আমরা এখন যে অবস্থায় আছি তাতে ম্যাচ হাতে থেকে খুব একটা বেরিয়ে যেতে দেইনি। শেষ বেলায় দুটি উইকেট নিতে পেরে বেশ ভালো হয়েছে।”
গ্যারি লিনেকারের একটা মন্তব্য যেন প্রবাদে পরিণত হয়েছে, ফুটবলে ২২ জন খেলোয়াড় একটা বলের পেছনে ৯০ মিনিট ছোটে আর শেষ পর্যন্ত জার্মানি জিতে। অনেকটা একইভাবে বলা যায় বাংলাদেশের ক্ষেত্রে। ম্যাচে যতই লড়াই করুক, নিউ জিল্যান্ডে শেষ পর্যন্ত স্বাগতিকদের বিপক্ষে হারে বাংলাদেশ। এই জন্য কি তাদের হালকা করে দেখেছে নিউ জিল্যান্ড? বোল্ট এমন কিছু মনে করেন না।
“আমরা বাংলাদেশের বিপক্ষে অনেক ম্যাচ খেলি, ঘরে ও বাইরে দুই জায়গাতেই। এখানে ওরা অত্যন্ত ভালো ব্যাটিং করেছে। ওরা উন্নতি করছে। আমরা ওদের হালকাভাবে নিইনি। খুব রোমাঞ্চকর লাগছে যে, ম্যাচ এখনও সমতায় আছে। দুই দলের জন্যই বড় পরীক্ষা হতে যাচ্ছে এই ম্যাচ।”


প্রকাশিত: জানুয়ারি ৪, ২০২২ | সময়: ৭:১১ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর