রাজশাহী-৬ : একশো কি.মি. পথ হাঁটতে চান নৌকার প্রার্থী শাহরিয়ার

নুরুজ্জামান,বাঘা :

একজন কবি কোন এক সময় তাঁর কালির আঁচড়ে লিখে ছিলেন, আমিতো হাঁটতেই পারি মাইলের পর মাইল। রোদে কিংবা বৃষ্টিতে। তোমার পূর্ণতা টুকুর জন্য ছুটতে পারি ঝড়ের বেগে। কবির এই কথা, ধারণ ও লালন করে এখন এক প্রান্ত থেকে আরেক-প্রান্তে ছুটছেন রাজশাহী-৬ চারঘাট-বাঘা থেকে তিনবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও দুই বারের সফল পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। তাঁর চোখে ঘুম কমেছে, নেই ক্লান্তি , নেই বিশ্রাম। কারণ সামনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এই নির্বাচনে এবার তিনি একশো কিলোমিটার পথ হাঁটার প্রত্যয় ব্যক্ত করে প্রচারনায় নেমেছেন।

 

 

 

 

 

 

এবারের নির্বাচনকে ঘিরে তিনি প্রতিদিন ছুটছেন মাইলের পর মাইল। তাঁর ভাবনা, ৭১ এর পরে এই আসন থেকে সর্ব প্রথম তিনি নৌকার মাঝি হয়েছেন। আর এটি তাঁকে ধরে রাখতে হবে। অবশ্য এরও একটি কারণ ইতোমধ্যে ব্যখ্যা করেছেন তিনি। তাঁর মতে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একটানা চতুর্থ বারের ন্যায় তাঁকে দলীয় প্রার্থী করে এলাকায় পাঠিয়েছেন। যা সবার ভাগ্যে জুটেনা। এ কারনে তিনি আবারো জয়ের লক্ষ্য নিয়ে প্রতিদিন ভোটারদের দারে ছুটছেন এলাকার এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে। অত:পর বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষদের সাথে কুশল বিনিময় ও নৌকায় ভোট চাচ্ছেন। তাঁর লক্ষ্য,এবারের নির্বাচনে তিনি একশো কিলোমিটার পথ পাড়ি দিবেন।

 

 

লোকজন জানান, শাহরিয়ার আলম যখন যে এলাকায় যাচ্ছেন তখন সাথে নিচ্ছেন ঐসব এলাকার স্থানীয় নেতা-কর্মীদের। শুনছেন ভোটারদের চাওয়া পাওয়া ও অভাব-অভিযোগের কথা। এদিক থেকে কখনো-কখনো প্রশ্ন বিদ্ধ হতে হচ্ছে এলাকা ভিত্তিক স্থানীয় নেতাদের। তারা পড়ছেন চাপের মখে। তবে যেখানে যে সমস্যায় থাকুক না কেন, তাৎক্ষনাৎ সেটির তালিকা হচ্ছে এবং নির্বাচন পরবর্তী সময়ে তা সমাধানের আশ্বাস দিচ্ছেন বর্তমান সরকারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও চারঘাট-বাঘার সংসদ সদস্য শাহরিয়ার আলম।

 

সরেজমিন লক্ষ করা গেছে, ২০ ডিসেম্বর দিনব্যাপী তিনি নৌকায় ভোট চেয়েছেন বাঘা উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের সকল ওয়ার্ড এবং পাড়া-মহল্লায়। এ সময় তিনি ভোটারদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দিপনা লক্ষ্য করেছেন। অনেকেই প্রিয় নেতাকে কাছে পেয়ে জড়িয়ে ধরছেন। তিনি একটি মোড়ে গিয়ে এলাকার মুরব্বীদের সাথে কুশল বিনিময় কালে তাঁরা বলেন, আপনি প্রতিটি এলাকায় যে ভাবে উন্নয়ন করেছেন তা থেকে আপনার ভোট চাইতে আসার দরকার ছিলনা। তার পরেও এসেছেন। এ জন্য আমরা খুশি হয়েছি। তবে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে যেসব নেতারা জোট বেধে একজনকে স্বতন্ত্র প্রার্থী দাঁড় করিয়ে তার পেছনে ছুটছেন তার একটি বিহিত চাই। এ সময় শাহরিয়ার আলম তাদের সান্তনা দিয়ে সকলের কাছে দোয়া প্রত্যাশা করে বলেন, ধৈর্য হারাবেন না,আপনারা পাশে থাকলে কোন অপশক্তি নৌকাকে পরাজিত করতে পারবেনা। জয় আমাদের হবেই হবে।

 

উল্লেখ রাজশাহী ৬ চারঘাট-বাঘা আসনে এবার মোট ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত একজন নেতা রায়হানুল হক সতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। বাঁকি ৫ জন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রার্থী হয়ে এলাকায় প্রচারনায় আছেন।

সানশাইন / শামি


প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২০, ২০২৩ | সময়: ৬:০৯ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine

আরও খবর