সর্বশেষ সংবাদ :

আমাকে অপমানের জন্য ওই সাংবাদিককে শাস্তি পেতে হবে, বললেন এরদোগান

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান দেশটির প্রাইভেট টিভি চ্যানেলে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘এই অপরাধের শাস্তি না হওয়ার নয়। আামাদের প্রেসিডেন্সির সম্মান অক্ষুণ্ন রাখা আমাদের দায়িত্ব। এর সঙ্গে বাক-স্বাধীনতার কোনো সম্পর্ক নেই। এর আগে টেলিভিশনের লাইভে তুরস্কের সুপরিচিত সাংবাদিক সেদেফ কাবাসকে বলতে শোনা যায়, ‘মুকুট পরা মাথা মাত্রই বুদ্ধিমান’ বলে একটি খুব বিখ্যাত প্রবাদ আছে কিন্তু আমরা দেখছি এটি সত্য না। ‘শুধু রাজপ্রাসাদে ঢুকলেই ষাঁড় রাজা হয় না, প্রাসাদ হয়ে যায় শস্যাগার।’ এই উদ্ধৃতিটি পরে টুইটারে পোস্টও করেন তিনি। এই পোস্টের কয়েক ঘণ্টা পরই গ্রেপ্তার হন তিনি। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে। তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে এতে এক থেকে চার বছরের কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে। তুরস্কের সাংবাদিক ইউনিয়ন কাবাসের গ্রেপ্তারকে ‘বাক-স্বাধীনতার ওপর ভয়ানক হামলা বলে মন্তব্য করেছে।’ টেলি১ চ্যানেলের সম্পাদক মেরদান ইয়ানারদাগ মিসেস কাবাসের গ্রেপ্তারের নিন্দা জানিয়ে বলেন, ‘একটি প্রবাদের কারণে রাত ২ টায় তাকে আটক করা অগ্রহণযোগ্য। এটি সাংবাদিক, মিডিয়া এবং সমাজকে ভয় দেখানোর চেষ্টা। ২০১৪ সালের আগস্টে দেশের প্রথম প্রত্যক্ষভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ১১ বছর দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। সমালোচকদের প্রতি তার কঠোর নীতি দেশে-বিদেশে তীব্র সমালোচনার জন্য দিয়েছে। প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত হাজার হাজার মানুষের বিরুদ্ধে এরদোগানকে অপমান করার অভিযোগ আনা হয়েছে। ২০২০ সালেই শুধুমাত্র এ সম্পর্কিত ৩১ হাজারের বেশি মামলা দায়ের করা হয়েছিলো বলে জানায় রয়টার্স।


প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৭, ২০২২ | সময়: ৪:৫৬ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine