Daily Sunshine

হামাসের তীব্র সমালোচনার পরও বৈঠকে বসলেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট ও ইসরায়েলি প্রতিরক্ষামন্ত্রী

Share

সানশাইন ডেস্ক

ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরের রামাল্লায় প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বেনি গানৎজের বৈঠক হয়েছে। ১০ বছরের মধ্যে ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের উচ্চ পর্যায়ের নেতাদের এটাই প্রথম বৈঠক। চলতি বছর জুন মাসে ইসরায়েলে নতুন সরকার গঠিত হয়। এর আগে প্রায় এক যুগ ক্ষমতায় ছিলেন বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ৮৫ বছর বয়সী আব্বাসের সঙ্গে বেনি গানৎজের বৈঠকে গুরুত্ব পেয়েছে ‘গাজা ও পশ্চিম তীরের নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিক বিষয়গুলো’। সম্প্রতি ওয়াশিংটন ডিসিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট। এরপরপরই এমন বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

পরে এক টুইট বার্তায় ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বেনি গানৎজ বলেন, ফিলিস্তিনের অংশে অর্থনৈতিক অবস্থা শক্তিশালী করতে কাজ করবে ইসরায়েল। এছাড়াও তারা নিরাপত্তা ইস্যু নিয়েও আলোচনা করেছেন তারা। ২০১৪ সালের পর এটি কোনো উচ্চপর্যায়ের বৈঠক।

এক ফিলিস্তিনি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, পরিস্থিতি উন্নয়নে গান্টজ ও আব্বাস সম্ভাব্য পদক্ষেপ নিয়েও আলোচনা করেছেন। এপির খবরে বলা হয়, ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার একজন কট্টরবিরোধী। তবে তিনি ফিলিস্তিনের অর্থনৈতিক উন্নয়ন সমর্থন করেন। তিনি গাজার শাসক হামাস গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী মাহমুদ আব্বাসকে শক্তিশালী হিসেবে দেখতে চান।

হামাসের প্রতিক্রিয়া

আলোচিত ওই বৈঠক নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠন হামাস। এছাড়াও ফিলিস্তিনের আরেক প্রভাবশালী সংগঠন ইসলামিক জিহাদও ওই বৈঠকের নিন্দা জানিয়েছেন। আজ সোমবার হামাসের মুখপাত্র সামি আবু জুহরি ওই বৈঠকের তীব্র সমালোচনা করে বলেন, এটা একটা ‘বিপজ্জনক পদক্ষেপ’। এটা ফিলিস্তিনের স্বার্থবিরোধী কাজ।

সূত্র: এনডিটিভি।

সানশাইন/ তই

আগস্ট ৩১
১২:২৬ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]