Daily Sunshine

পশ্চিমবঙ্গে চতুর্থ দফার ভোটগ্রহণ শুরু

Share

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের চতুর্থ দফার ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। শনিবার (১০ এপ্রিল) সকালে রাজ্যের ৫ জেলার ৪৪টি বিধানসভা আসনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। এর আগে গত ২৭ মার্চ প্রথম দফা, ১ এপ্রিল দ্বিতীয় দফা এবং ৬ এপ্রিল তৃতীয় দফার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। মোট আট দফায় এবার রাজ্যটিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এদিকে ভোটগ্রহণ কেন্দ্রগুলোতে নেওয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তা। চতুর্থ দফার পাঁচটি জেলার ৪৪টি আসনের মধ্যে উত্তরবঙ্গের কোচবিহার জেলার ৯টি এবং আলিপুরদুয়ারের ৫টি বিধানসভা আসনের সব ক’টিতেই ভোটগ্রহণ চলছে। এছাড়া দক্ষিণ ২৪ পরগনার ৩১টি আসনের মধ্যে ১১টি, হাওড়া জেলার ১৬টির মধ্যে ৯টি এবং হুগলির ১৮টির মধ্যে ১০টি আসনেও ভোটগ্রহণ হচ্ছে।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফলে এই ৪৪টি আসনের মধ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে ছিল ৩৯টি। বিজেপি’র হাতে ছিল মাত্র একটি এবং বামদের দখলে ছিল ৩টি আসন। আর তাদের জোট শরিক কংগ্রেসের ঝুলিতে ছিল একটি আসন।

অবশ্য ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের ফলাফলে বিধানসভাভিত্তিক ফলের হিসাব অনেকটা বদলে গেছে। এই ৪৪টি আসনের মধ্যে তৃণমূল ২৫টি এবং বিজেপি ১৯টি আসনে এগিয়ে। তবে সে সময় পৃথক ভাবে লড়াই করা বাম-কংগ্রেসের হাতে কোনো আসনই নেই।

প্রথম তিন দফার ভোটে উত্তেজনা ছড়ানোর পর চতুর্থ দফার ভোটে আরও কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। চতুর্থ দফায় রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। শনিবারের ভোটে বুথে মোতায়েন থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনীর মোট ৭৯৩ কোম্পানি সদস্য।

এছাড়া কলকাতা পুলিশের অধীন এলাকায় ৯৪ কোম্পানি, আলিপুরদুয়ারে ৯৬, কোচবিহারে ১৮৩, হাওড়া পুলিশ কমিশনারেটে ৯৯, ডায়মন্ড হারবার পুলিশ জেলায় ৩৮, হাওড়া গ্রামীণে ৩৫ এবং বারুইপুর পুলিশ জেলায় ৪৪ কোম্পানি বাহিনী মোতায়েন রয়েছে। চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটে থাকবে ৭৯ কোম্পানি। এছাড়া অন্যান্য দায়িত্বপালনে আধাসামরিক বাহিনীও মোতায়েন রয়েছে।

 

এপ্রিল ১০
০৯:১৩ ২০২১

আরও খবর