সর্বশেষ সংবাদ :

সাগরিকায় অন্য সাকিবকে আবিষ্কার

ফরচুন বরিশালের দলীয় অনুশীলন সকাল সাড়ে ১০টায়। কিন্তু তার আগেই মাঠে হাজির সাকিব আল হাসান। সাড়ে ৯টায় মাঠে এসে পৌনে ১০টায় ব্যাট-প্যাড পরে প্রেসবক্স সীমান্তের পাশের উইকেটে ব্যাট নিয়ে নেমে পড়েন এই অলরাউন্ডার। এমন সাকিবের দেখা মেলা ভার। সাগরিকার বুকে এদিন অন্য এক সাকিবকে আবিষ্কার করা গেলো। ব্যাটিং ব্যর্থতা কাটানোর মিশন নিয়ে সাগরিকার বুকে প্রায় দেড় ঘণ্টা একা একাই অনুশীলন করলেন সাকিব।

বিপিএলের গত তিন ম্যাচে বোলিং ভালো হলেও ব্যাটিংটা ঠিক হচ্ছে না তার। নিজের ব্যাটিং ব্যর্থতার সঙ্গে দলের বাকি ব্যাটারদের ব্যর্থতা মিলিয়ে বরিশালের তাঁবুতে অস্বস্তি বাড়ছে। তিন ম্যাচে তাদের জয় মাত্র একটিতে। এমন অবস্থায় চট্টগ্রামের সাগরিকা স্টেডিয়ামের বুকে ব্যাটারদের নিয়েই বেশি কাজ করতে দেখা গেলো কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনকে। হবেই না কেন, বিপিএলে নিজেদের অবস্থার উন্নতি করতে হলে ব্যাটারদের রানের ফেরার বিকল্প নেই যে! অধিনায়ক সাকিবের ভাবনাও কম নয়। দলের ব্যাটিং তো আছেই, নিজের ব্যাটিং নিয়েও দুচিন্তায় তিনি। গত তিন ম্যাচে তার রান যথাক্রমে ১৩, ২৩ ও ১। এই অবস্থায় নিজেকে ফিরে পেতে জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে দুজন থ্রোয়ারকে নিয়ে ঘণ্টাদেড়েক ব্যাটিং নিয়ে কাজ করলেন। সকাল পৌনে ১০টায় থ্রোয়ার রমযান আলী ও সহকারী কোচ আশিকুর রহমানকে নিয়ে ব্যাটিং শুরু করেন তিনি। তখনও দলের অন্য সদস্যরা আসেননি। প্রথম আধঘণ্টায় থ্রোয়ারের বেশিরভাগ বলেই বিট হয়েছেন। এলোমলো সাকিব যতবারই বল মিস করেছেন, ততবারই চোখেমুখে বিরক্তি ভাব ফুটে উঠেছে।  রমযান-আশিকুরের বেশ কিছু বাউন্সার হেলমেটেও লাগে। শুরুতে বাউন্সারগুলো ঠিকমতো খেলতে পারেননি, তবে খুব বেশি গতি না থাকায় খুব একটা সমস্যা হয়নি। সোজা ব্যাটে বেশ কিছু শটস দারুণভাবে খেললেও কিছু বল কাভারে খেলতে গিয়ে হয়েছেন বিভ্রান্ত। তবে বারবার ব্যর্থতা সত্ত্বেও সাকিব নিজের চেষ্টা অব্যাহত রাখেন। একসময় সফলও হন এই অলরাউন্ডার। এক থ্রোতে দারুণ এক কাভার ড্রাইভ খেললে সন্তুষ্টি ফুটে ওঠে সাকিবের চেহারায়। প্রথম আধঘণ্টায় বলের সঙ্গে যুদ্ধ করলেও সময় গড়ানোর সঙ্গে যেন খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসেন এই অলরাউন্ডার। আধঘণ্টারও বেশি সময় ব্যাটিং অনুশীলন করে বিরতিতে যান সাকিব। আবার যখন নেটে ফেরেন, তখন মাঠে ঢোকা শুরু করেন ফরচুন বরিশালের অন্য ক্রিকেটাররা। বিরতি থেকে ফিরেই লং শটস খেলার দিকে মনোযোগ দেন বাঁহাতি এই ব্যাটার। কিছু শটস ‘পারফেক্ট’ না হলেও মিড উইকেট, লং অন ও লং অফের ওপর দিয়ে দারুণ কিছু শটস খেলেছেন। প্রথম পার্টের অনুশীলনে কিছুটা এলোমেলো থাকলেও দ্বিতীয় পর্বে মাঠে নেমে সত্যিকারের সাকিবকে পাওয়া গেলো। আগামী শনিবার খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে এমন সাকিবকে পাওয়া গেলে হারের বৃত্ত ভাঙার কাজ সহজ হওয়ার কথা বরিশালের। ঘণ্টাদেড়েক ব্যাটিংয়ের পর সাকিব পাশের চেয়ারে বেশ খানিক সময় বিশ্রাম নেন। এদিন শুধু ব্যাটিং অনুশীলন নিয়েই ব্যস্ত থাকেন তিনি। নেটে কোনও বোলিং করেননি, কোনও ফিল্ডিং অনুশীলনেও অংশ নেননি। আসলে বরিশাল পুরো দলই ব্যাটিং অনুশীলনের ওপর জোর দিয়েছে। সচরাচর এমন সাকিবকে দেখা যায় না। দলের আগে মাঠে আসা, কঠোর অনুশীলন করা। বোঝাই যাচ্ছে, সাকিব ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতে কতটা উদগ্রীব হয়ে আছেন। ব্যাটিং নিয়ে বাড়তি কাজ করে বিপিএলের বাকি অংশে জ্বলে ওঠার অপেক্ষায় এই তারকা!


প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৭, ২০২২ | সময়: ৫:৩৮ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine