Daily Sunshine

নীল জল দিগন্ত ছুঁয়ে এসেছি…

Share

আসাদুজ্জামান নূর : ২০১৭ সালের জুনে ইন্দোনেশিয়ায় ছুটি কাটাতে গিয়ে বালিতে ওয়াটার রাফটিং করেছেন বারাক ওবামা। জাস্টিন ট্রুডো ২০১৮ সালে ভারতে তাজমহলসহ বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থান ভ্রমন করেছেন। ছুটিতে মেতেছেন পরিবারের সদস্যদের সাথে- উন্নত দেশের রাজনৈতিক নেতাদের এমন খবর পড়ে অভ্যস্থ আমরা। তবে আমাদের দেশের রাজনৈতিক নেতাদের ব্যক্তিগত ছুটি বলে তেমন কিছু থাকে না। পরিবার নিয়ে প্রকাশ্যে ছুটি কাটানোর সময় মিলেনা তাদের।

তবুও তো মানুষের জীবন, নানা ব্যস্ততার কোন ফাঁকে জীবনসঙ্গিনীর সাথে যদি মেলে অবসর, আবার সেটা যদি হয় সমুদ্রের তটে, তাহলে কর্মব্যস্ত ও কঠিন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের ভেতরে সুপ্ত সৃজনশীল ও প্রকৃতিপ্রেমী স্বত্ত্বা অবলীলায় বেরিয়ে আসাটাই স্বাভাবিক। এমনটাই ঘটেছে রাজশাহীর গণমানুষের নেতা ও নগরপিতা এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের বেলাতেও।

হ্যাঁ ঠিকই পড়েছেন, বলছি জাতীয় চারনেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান হেনার সন্তান; প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদাপ্রাপ্ত রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের কথা।

কর্মব্যস্ত জীবনের ফাঁকে গত সোমবার মেয়র কিছুটা সময় কাটিয়েছেন কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে। মিলেছেন নীল জলে। পা ভিজিয়েছেন লোনাজলে। এসময় তার সাথে ছিলেন জীবনসঙ্গিনী শাহীন আকতার রেনী। ১৭ বছর পরে মেয়র গিয়েছেন সমুদ্রের কাছে। তাই আর দশটা সাধারণ মানুষের মতই উপভোগ করেছেন সমুদ্রনীল। নীলরাশির পাড়ে স্বস্ত্রীক চড়ে বেড়িয়েছেন রাইডারে। স্ত্রী রেনীকে নিয়ে ভিজেছেন সমুদ্রজলে।

মেয়রের সমুদ্র অবকাশ মন কেড়েছে রাজশাহীবাসীর। গতকাল সেই ছবিগুলো ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। ভক্ত, শুভাকাঙ্খী, দলীয় নেতাকর্মী থেকে শুরু করে সাধারণ জনগন; সবাই শুভেচ্ছায় ভাসাচ্ছেন মেয়র পরিবারকে।

বিভিন্ন ছবিতে দেখা যায়, সমুদ্রের জল হাতে হাস্যজ্জ্বোল মেয়র, স্ত্রী শাহিন আকতার রেনীসহ পা ভেজা পানিতে, তো আবার রাইডারে ঘুরছেন। কখনো আবার একাই ছুটে চলেছেন রাইডারে। জেলেদের সাথে মাছ ধরায় অংশগ্রহন ও ধরাপড়া মাছ দেখছেন স্বামী-স্ত্রী মিলে। স্ত্রীর কাধে হাত রেখে সমুদ্রগর্ভের দিকে আঙুল দিয়ে কি একটা দেখাচ্ছেন, লাইফ পার্টনারের কাছে ভালোলাগার অভিব্যক্তি প্রকাশ করছেন।

এই ছবিগুলো মন কেড়েছে সাধারণ মানুষের। রাজশাহী ও এই অঞ্চলের মানুষের উন্নয়নে কাজ করতে গিয়ে যার দু’দন্ড বসার সময় হয়না, সেই প্রখর রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব কিছুটা সময় অবসর কাটাচ্ছেন। অবসর ঠিক নয়, কাজের ফাঁকে একটু সমুদ্রের বিশালতায় অবগাহন। নেতা থেকে সাধারণ মানুষের রূপে আর্বিভূত হয়েছেন। স্বভাবতই বিষয়টা উপভোগ করছেন সাধারণ মানুষ। নগরবাসী বলছেন, রাজনৈতিক নেতা হলেও তিনিও একজন মানুষ। তারও অবসরের প্রয়োজন আছে। মেয়রের এমন প্রাণবন্ততায় আনন্দ প্রকাশ করেছেন জনসাধারণ।

এদিকে, ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে মেয়রের সমুদ্র অবকাশের ছবিগুলো। লাইক, শেয়ার ও কমেন্টের মাধ্যমে মানুষ তাদের ভালোবাসার কথা জানান দিচ্ছেন। ‘আব্বু-আম্মু’ ক্যাপশন দিয়ে ছবিগুলো নিজের ফেসবুক এ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন মেয়রের বড় মেয়ে ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা। তার পোস্টে হাজার হাজার লাইক পড়েছে। সেখানে কমেন্ট বক্সে ভালোবাসা জানাচ্ছেন মানুষ।

নূর মোহাম্মাদ সিয়াম নামের একজন লিখেছেন, প্রিয় নগর পিতা ও নগর মাতা। মহিদুল ইসলাম মোস্তফা নামের একজন লিখেছেন, বিনোদন খুব প্রয়োজন। ববিন খান লিখেছেন, অসাধারণ। এম আতিকুর রহমান সুমন নামের একজন লিখেছেন, অসাধারণ মনোমুগ্ধকর। সাহিন তানজিলা লিখেছেন, অলওয়েজ লাভ টু সি দেম টুগেদার… নাইস ক্যাপচার। মিলন কুমার সরকার লিখেছেন, প্রিয় নগর পিতা ও প্রিয় নগর মাতার জন্য রইলো অনেক অনেক শুভ কামনা..।

সমুদ্রভ্রমণ কেমন উপভোগ করেছেন জানতে চাইলে মুঠোফোনে হাসি দিয়ে মেয়র লিটন জানান, প্রায় ১৭ বছর পরে সমুদ্রে বেড়াতে গেছেন তিনি। মেয়রের দায়িত্ব, কাজ, রাজনৈতিক কার্যক্রম ইত্যাদি নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটে; মেলেনা অবসর। তাই এমন অবসর ও সমুদ্রপাড়ে গিয়ে আনন্দ অনুভূতি প্রকাশ করেন মেয়র লিটন। তিনি বলেন, অন্যরকম অনুভূতি কাজ করছে। জীবনসঙ্গিনী সাথে আছে, সমুদ্রের পাড়ে রাইডগুলোতে চড়েছি। আলাদাভাবে সমুদ্র অনুভব করছি। যেন নীল জল দিগন্ত ছুঁয়ে এসেছি…।

সানশাইন/১৭ নভম্বের/মামুন

নভেম্বর ১৭
২৩:০৭ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

শীতের আমেজে আহা…ভাপা পিঠা

শীতের আমেজে আহা…ভাপা পিঠা

রোজিনা সুলতানা রোজি : প্রকৃতিতে এখন হালকা শীতের আমেজ। এই নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়ায় ভাপা পিঠার স্বাদ নিচ্ছেন সবাই। আর এই উপলক্ষ্যটা কাজে লাগচ্ছেন অনেক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। লোকসমাগম ঘটে এমন মোড়ে ভাপা পিঠার পসরা সাজিয়ে বসে পড়ছেন অনেকেই। ভাসমান এই সকল দোকানে মৃদু কুয়াশাচ্ছন্ন সন্ধ্যায় ভিড় জমাচ্ছেন অনেক পিঠা প্রেমী। রাজশাহীর বিভিন্ন

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

৭ ব্যাংকের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

৭ ব্যাংকের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

সানশাইন ডেস্ক: সাত ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা (২০১৮ সালভিত্তিক) স্থগিত করা হয়েছে। আগামী ৫ ডিসেম্বর রাজধানীর ৬৭টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। শনিবার (২৮ নভেম্বর) ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির (বিএসসি) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। যে সাতটি ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার স্থগিত করা হয়েছে সেগুলো হলো হলো—সোনালী

বিস্তারিত