সর্বশেষ সংবাদ :

রাজশাহীতে শিবিরের ৩ সদস্য গ্রেফতার

রাজশাহীতে বোয়ালিয়া মডেল থানার নাশকতা মামলার আসামী শিবিরের ৩ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ।মঙ্গলবার(০৬ ফেব্রুয়ারি)দুপুর দেড়টায় নগরীর হেতেম খাঁ এলাকা হতে তাদের গ্রেফতার করেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর থানার বড় দাদপুর গ্রামের মো. জিল্লুর রহমানের ছেলে মো. শিহাব সুমন (১৯), শিবগঞ্জ থানার মো. এনামুল হকের ছেলে মো. ইউসুফ আলী (২০) ও ঠাকুরগাঁও জেলার রাণী শংকৈল থানার চেংমারী গ্রামের মো. আতাউরর রহমানের ছেলে মো. আল মামুন (১৯)।

তারা সকলেই বোয়ালিয়া থানার হেতেম খাঁ এলাকা হতে পড়াশুনা করতো।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, গত ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১ বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ কয়েরদাড়া গ্রামের রবিউল ইসলামের বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে ৩ জন জামায়াত শিবিরের কর্মীকে বিভিন্ন রেকর্ডপত্র, জিহাদি বই, ব্যানার, ক্যাশ রেজিস্ট্রার ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রসহ আটক করলেও ১০-১২ জন পালিয়ে যায়। ঐ সময় তারা সন্ত্রাসী কার্যক্রম সংঘটনের প্ররোচনা, ষড়যন্ত্র ও জুম মিটিং করছিলো। তখন হতে পলাতক আসামীদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রেখেছিলো বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ।

পরবর্তীকালে আজ মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় সহকারী পুলিশ কমিশনার (বোয়ালিয়া) মীর মুহসীন মাসুদ রানার সার্বিক দিক নির্দেশনায় বোয়ালিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মাজহারুল ইসলামের নেতৃতে এসআই মো. মিজানুর রহমান সরকার ও তার টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে হেতেম খাঁ এলাকা হতে উক্ত ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে শিবির কর্মী মো. শিহাব সুমন, মো. ইউসুফ আলী ও মো. আল মামুন রুপসকে গ্রেফতার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামীরা জানায়, তারা শিবিরে সক্রিয় সদস্য। গত ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১ বোয়ালিয়া মডেল থানার কয়েরদাড়া গ্রামের রবিউল ইসলামের বাড়ীতে তারা ষড়যন্ত্র ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমের উদ্দেশ্যে জুম মিটিং করাকালে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানানো হয় সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

সানশাইন/জেএএফ


প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২২ | সময়: ৭:২৪ অপরাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর