Daily Sunshine

বাঘার মাদক সম্রাজ্ঞী সীমা বেগম হেরোইন সহ গ্রেফতার

Share

সানশাইন ডেস্ক

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার চকছাতারী গ্রামের মাদক সম্রাজ্ঞী সীমা বেগমকে হেরোইনসহ অবশেষে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার(২৯-আগষ্ট) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নিজ বাড়ী থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। আর এই খবরটি জানা-জানি হলে পুলিশকে ধন্যবাদ জানান এলাকার সুধী মহল।

 

বাঘা থানা পুলিশের একটি মুখপত্র জানান, এ থানায় নতুন ওসি যোগদানের পর আত্নগোপনে থেকে সু-কৌশলে মাদক ব্যবসা করে আসছিল বাঘার চকছাতারী গ্রামের মাদক বিক্রেতা সুলতান আলীর মেয়ে সীমা বেগম। তার পেছনে পুলিশের সোর্স কাজ করছিল। সর্বশেষ রবিবার রাত ৮ টার সময় একজন গ্রাহক সীমার বাড়ীতে হোরোইন ক্রয় করতে গেলে বাঘা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এস.আই) স্বপন ৩০ গ্রাম হোরোইস সহ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসেন। যার মুল্য প্রায় ২ লক্ষ টাকা।

 

স্থানীয় এক স্কুল শিক্ষক জানান, সীমা বেগম এর পিতা এবং মাতার নামে বাঘা থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। বর্তমানে তারা এ জগৎ থেকে সরে দাড়ালে গত প্রায় ৪ বছর ধরে তার মেয়ে সীমা বেগম(৩৫) স্থানীয় লোকজন-সহ প্রশাসনকে ম্যানেজ করে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বনের মাধ্যমে- ইয়াবা,ফেন্সিডিল, গাঁজা ও হোরোইন ব্যবসা করে আসছিলো।

 

অনুসন্ধ্যানে জানা গেছে, ইতোমধ্যে সীমা বেগম অত্র এলাকায় গত ৪ বছরে প্রায় ১০ বিঘা জমি এবং দুইটা ট্রাক ক্রয়-সহ ফ্লাট বাড়ী নির্মান করেছেন। তার স্বামীর বাড়ী পাবনা জেলার নগরবাড়ী এলাকায় হলেও তিনি বিয়ের পর থেকে এখানে ঘর জামাই হিসাবে অবস্থান করেন।

 

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি)সাজ্জাদ হোসেন জানান, মাদকের সাথে কোন আপোষ নেই। আমি এ থানায় যোগদানের পর ইতোমধ্যে বেশ কিছু তালিকা ভুক্ত মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছি। এ খবর প্রচার হওয়ায় এখন অনেকেই আত্নগোপনে রয়েছে। এর মধ্যে সীমা বেগমও আত্ন গোপনে ছিলো। সর্বশেষ রবিবার রাতে সোর্সের মাধ্যমে সু-কৌশলে ৩০- গ্রাম হেরোইন সহ তাকে গ্রেফতার করা হয়।

সানশাইন/ তই

আগস্ট ৩০
১০:৩৯ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]