Daily Sunshine

মাদকের টাকার জন্য স্ত্রীকে নির্যাতন

Share

স্টাফ রিপোর্টার,বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় বাবার বাড়ী থেকে স্বামীকে মাদক সেবনের টাকা (যৌতুক) এনে দিতে না পারায় এক গৃহবধুকে নির্মম ভাবে নির্যাতন করেছে তার স্বামী। এ ঘটনায় ঐ গৃহবধুর নাক দিয়ে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। বর্তমানে তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন রয়েছে। নিরুপায় হয়ে গৃহবধুর বাবা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে জানা গেছে,উপজেলার খানপুর গ্রামের জেকের আলীর ছেলে রাসেল(২৫) নিয়মিত মাদক সেবন করে। এ জন্য তার টাকার প্রয়োজন হওয়ায় সে তার স্ত্রীকে বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক হিসাবে একের পর-এক টাকা আনতে বলে। সর্বশেষ গত ২৪ জুলাই সকাল ১১ টায় রাসেল তার স্ত্রীকে বাবার বাড়ী থেকে টাকা আনার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এতে তার স্ত্রী অপারগতা প্রকাশ করলে তাকে বেধড়ক মারপিট করা হয়। এতে তার নাক দিয়ে প্রচুর পরিমান রক্তক্ষরণ হয়। ঘটনার এক পর্যায় পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা ঐ গৃহবধুকে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে এনে ভর্তি করেন।

মামলার বাদি একই উপজেলার খায়ের হাট গ্রামের বাসিন্দা ও গৃহবধুর বাঘা আনারুল ইসলাম জানান, মেয়ের সুখের জন্য তিনি মাঝে মধ্যেই তার জামাইকে টাকা দিয়ে আসছেন। কিন্ত বর্তমানে তার নেশার পরিধি এতো বৃদ্ধি পেয়েছে যে , প্রতিনিয়ত তার টাকা চায়। নিরুপায় হয়ে মেয়েকে নির্যাতনের পরদিন স্থানীয় ইউপি সদস্যকে সাথে করে বাঘা থানায় তিনি একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এদিকে স্থানীয় লোকজন জানান, সরকার মাদককে জিরো টলারেন্স (নিষিদ্ধ) ঘোষনা করলেও বাঘা সীমান্ত এলাকায় এর প্রবনতা কোন ভাবেই কমিয়ে আনা সম্ভাব হচ্ছেনা । উপরন্ত নদীতে পানি বাড়ার পর থেকে এর ব্যাপকতা আগের যে কোন সময়ের চেয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে।  তাঁদের মতে, মাদক সেবন কারিদের কারনে ইতোমধ্যে অনেক ঘর ভেঙ্গেছে। আবার অনেক-স্ত্রী বাবার বাড়ী থেকে টাকা এনে দিতে না পারায় নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন।

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। এ বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জুলাই ২৬
১৬:১৭ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]