Daily Sunshine

পুলিশের সাথে পুলিশের প্রেম, বিয়েতে রাজি না হওয়ায় প্রেমিকা পুলিশের আত্মহত্যা

Share

সানশাইন ডেস্ক;

চাকরিস্থল থেকে ছুটিতে গ্রামের বাড়ি এসে বগুড়ার শেরপুরে পুলিশের নারী কনস্টেবল রহিমা খাতুন বিষপান করে আত্মহত্যা করেছে । গত বুধবার সন্ধ্যায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। কক্সবাজার জেলার উখিয়া ক্যাম্পে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নে কর্মরত রহিমা বগুড়ার শেরপুর উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়নের চন্ডেশ^র গ্রামের রফিকুলের মেয়ে ।

মৃতের চাচা রুবেল আহমেদ জানিয়েছেন, বিগত চার-পাঁচ দিন আগে ছুটি নিয়ে বাড়ি আসে রহিমা খাতুন। এরই মধ্যে মুঠোফোনে প্রেমিককে বিয়ের জন্য চাপ দেয় সে। কিন্তু বিয়েতে রাজি ছিলেন না প্রেমিক হৃদয় হাসান । এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয় । রহিমা ঘটনাটি পরিবারের সবাইকে জানায়। এরপর তার বাবা-মা অন্য জায়গায় তাকে বিয়ে দেয়ার কথা বললে এতে অভিমান করে বুধবার বেলা ১০টার দিকে পরিবারের কাউকে কিছু না জানিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় । এক পর্যায়ে উপজেলার শাহবন্দেগী ইউনিয়নের হাতিগাড়া এলাকাস্থ স্যাটকম এগ্রো পার্কে গিয়ে বিষপান করে অসুস্থ হয়ে পড়ে সে। পার্কের মধ্যে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে লোকজন তাকে শেরপুর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয় । কিন্তু অবস্থার অবনতি ঘটলে তাৎক্ষণিক বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয় । তারপর সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় রহিমা খাতুন মারা যায় ।

শেরপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম গনমাধ্যম কর্মীদের বলেছেন, কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা তদন্তের পরই বলা সম্ভব হবে।

জানুয়ারি ১৪
০৮:৪৯ ২০২২

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]