Daily Sunshine

শেরপুরে ফুল এগ্রো ফার্ম লিমিটেডের সড়কটি পাকা করণের অভাবে চরম ভোগান্তিতে জনগণ 

Share
মিন্টু ইসলাম শেরপুর বগুড়া প্রতিনিধি, বগুড়া শেরপুরের খামারকান্দি ইউনিয়নের মাগুড়ার তাইড় গ্রামের ৬ নং ওয়ারডের বালিয়াদিঘী ঈদগাহ মাঠ হতে  ফুল  এগ্রো ফার্ম  লিমিটেড পর্যন্ত কাঁচা  সড়কটি পাকাকরণের অভাবে দীর্ঘদিন ধরে চরম  ভোগান্তিতে রয়েছেন  ফুল এগ্রো ফার্ম লিমিটেডে কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ নানা পেশার মানুষ। তাদের
 এই রাস্তাটির বিকল্প পথ না থাকায় একই পথে
 দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করতে খুব কষ্ট  হয়।
 এই রাস্তাটির আগে ধান কাটার মৌসুম ছাড়া তেমন গুরুত্ব ছিল না  কিন্তু বর্তমানে ফুল এগ্রো ফার্ম লিমিটেড প্রতিষ্ঠার এবং অনেক লোকের বাণিজ্যিকভাবে বিভিন্ন জাতের সবজি ও ফল চাষ করার ফলে এ রাস্তাটির গুরুত্ব দিন দিন বেড়েই চলছে।
এছাড়া প্রায় ১ কিলো ৩০০ মিটার এ সড়কটি পাকা না হওয়ায় শুষ্ক মৌসুমে ধুলাবালি ও বর্ষাকালে কর্দমাক্ত ও পিচ্ছিল হওয়ার ফলে  বিপাকে পড়েন  মানুষ। ফলে প্রতিদিন সড়কটি দিয়ে চলাচলকারী  শত শত  মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মাগুডার তাইড় গ্রামের সাথে এই সড়কের  আগে সংযোগ পথ  ছিল  বারবার বন্যার কারণে পানি নিষ্কাশনের ফলে  কালভাট ও ড্রেনেজ সিস্টেম না থাকায় বন্যা পরবর্তী সময়ে পুনরায় রাস্তা নির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ উদ্যোগ না নেওয়ায় ফলে সড়কের ম্যাপ থাকা সত্বেও রাস্তাটির ওই অংশটুকু  বর্তমানে কোনো অস্তিত্ব নেই ।

এলাকাবাসী আরও জানান, এ সড়ক দিয়ে আগে মাগুড়ার তাইড়,খামারকান্দী,ঘোড়দৌড়ের জনগণ ঘোড়ার গাড়ি,  টমটম গাড়ি,পালকি, গরুর গাড়ি, ট্রলি, ঠেলাগাড়ি ও কাঁধে করে ভার নিয়ে শেরপুরহাট, চান্দাইকোনা হাট রানিরহাট,তাড়াশ সহ এলাকার বিভিন্ন হাট-বাজার এবং আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে যাতায়াত করতো।

সাবেক মেম্বার আব্দুর রউফ বলেন,সরকার নির্দেশিত ম্যাপ করা রাস্তা মেম্বার, চেয়ারম্যান উদ্যোগ নিয়ে মাটি ফেললেই রাস্তা হয়ে যাবে।তিনি আরো বলেন,আগে বালিয়াদিঘী মাঠে ঈদের নামাজ সহ সাংসারিক বিভিন্ন কাজে আমরা এই রাস্তা দিয়ে চলাফেরা করতাম  বর্তমানে রাস্তাটি না থাকায়  চলাচলকারী শত শত  মানুষকে গরু-ছাগল, হাঁস-মুরগি, সাইকেলসহ অন্যান্য উপকরণ আনা-নেয়ার সময় বেশি ভোগান্তিতে শিকার  হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বালিয়াদীঘি ঈদগামাঠ হতে বিশিষ্ট ফল ব্যবসায়ী মোঃ শহিদুল ইসলামের ফুল এগ্রো ফার্ম লিমিটেডে পর্যন্ত সড়কের গুরুত্ব সবচেয়ে বেশি।

কাঁচা রাস্তাটির পুরো অংশ ধুলায় ভরা। এই রাস্তায় মোটরসাইকেল চলাচলের সময় বাতাসে উড়ে যাওয়া ধুলায় বিপাকে ফেলছে মানুষকে।

খামারকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মাগুড়ার তাইড় গ্রামের ৬ নং নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার এনামুল হক রানা বলেন,ফুল এগ্রো ফার্ম লিমিটেড রাস্তার পাকা করণের  কাজ অচিরেই শুরু হবে

 বগুড়া পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের  সিভিল ডিপার্টমেন্টের শিক্ষক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ নুরুল আমিন বলেন, সরকারি নির্দেশিত ম্যাপ করা রাস্তা জনপ্রতিনিধিরা  উদ্যোগ নিলেই  অবশ্যই বেরিয়ে আসব এখানে কোনো বাধা থাকার কথা নয়।

খামারকান্দি ইউনিয়ন পরিষদসূত্রে জানা যায,মাগুরার তাইড় গ্রামের সাথে ওই রাস্তার সংযোগ উদ্ধারে ও কাঁচা রাস্তা পাকা করণের ব্যাপারে সাধ্যমত সকল সহযোগিতা  করবেন।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ লিয়াকত হোসাইন বলেন, “প্রত্যেকটি নাগরিক যাতে পাকা রাস্তার যোগাযোগ সুবিধা পায় সেটা তিনি কামনা করেন।

ডিসেম্বর ১১
১১:২৯ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]