Daily Sunshine

দূর্নীতির অভিযোগে জয়পুরহাটে বিচারক রুস্তম আলীকে প্রত্যাহার

Share

নিজস্ব প্রতিবেদক, জয়পুরহাট : ক্ষমতার অপব্যবহার, স্বেচ্ছাচারিতাসহ নানা অনিয়মের অভিযোগে জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রুস্তম আলীকে প্রত্যাহার করে আইন ও বিচার বিভাগে সংযুক্ত করা হয়েছে।

বুধবার (০১ ডিসেম্বর) আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ থেকে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

এর আগে নানা অনিয়মের অভিযোগে গত ১০ নভেম্বর বিকেলে আইনজীবীদের বার্ষিক সাধারণ সভায় ওই আদালতের বিচারককে ২৮ নভেম্বরের মধ্যে আদালত ত্যাগ করার আলটিমেটাম দেওয়া হয়। বিচারক আদালত ত্যাগ না করায় গত ২৯ নভেম্বর ওই আদালত বর্জন করেছিলেন আইনজীবীরা।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সঙ্গে পরামর্শ করে জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মো. রুস্তম আলীকে বর্তমান কর্মস্থল থেকে প্রত্যাহারপূর্বক আইন ও বিচার বিভাগে সংযুক্ত করা হলো।

জয়পুরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা স্বপন কুমার সরকার সাংবাদিকদের বলেন, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রুস্তম আলীর বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলে আইনজীবীরা ওই আদালত বর্জন করেছিলেন। বিচারক প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত তারা আদালত বর্জন করে আসছিলেন।

এরপর আজ বুধবার আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ থেকে বিচারক মো. রুস্তম আলীকে প্রত্যাহার করে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। প্রজ্ঞাপনের চিঠিটি আদালতে এসেছে।

জয়পুরহাট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহনূর রহমান শাহীন সাংবাদিকদের বলেন, বিচারক মো. রুস্তম আলী ওই আদালতে যোগদানের পর থেকে অনিয়ম, দুর্নীতি ও ঘুষের সঙ্গে বিভিন্নভাবে জড়িয়ে পড়েন। এ রকম নানা অভিযোগ এনে আইনজীবী ও ভুক্তভোগীরা আইনজীবী সমিতিতে দরখাস্ত করেছিলেন।

এরপর একটি সাধারণ সভায় আইনজীবীদের সিদ্ধান্তে ২৮ নভেম্বর বিচারককে আদালত ত্যাগের আলটিমেটাম দেওয়া হয়। কিন্তু তিনি আদালত ত্যাগ না করায় আমরা ২৯ নভেম্বর থেকে ওই আদালত বর্জন করা শুরু করেছিলাম। বুধবার তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তিনি ওই স্থান ত্যাগ করলে আমরা আগামী রোববার (৫ ডিসেম্বর) থেকে আদালতে যাব।

 

 

ডিসেম্বর ০২
১৩:১২ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]