Daily Sunshine

বাঘায় চা দোকানির পুত্রকে গরম চা ঢেলে নির্যাতন

Share

স্টাফ রিপোর্টার,বাঘা : মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা যে কোনো মূল্যে যখন হাজার বছরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সমুন্নত রাখার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন , ঠিক সে সময় বাঘায় এক হিন্দু সম্প্রদায়ের শিশুর কপালে গরম চা ঢেলে তাকে নির্মম ভাবে নির্যানত করেছে এক নরপিচাশ। এ ঘটনায় সোমবার বাঘা থানায় ওই শিশুর পিতা শ্রী মিন্টু হালদার বাদি হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, গত শুক্রবার সকাল ৯ টার সময় উপজেলার আড়ানী বাজারের চা বিক্রেতা শ্রী মিন্টু হালদার (৪৫)তার তৃতীয় শ্রেনী পড়া ছেলে পৃথিবী হালদার(১০)কে একটি চা দিয়ে আসতে বলেন পাশের এক কাপড় ব্যবসায়ী ইমনের দোকানে। এ সময় পাশের দোকানে বসে থাকা সুইট(৩৫) ঐ শিশুর কাছে চা চেয়ে বসে।

তখন সে আরেক দোকানের অর্ডার বলে চা দিতে না চাইলে তিনি শিশুর প্রতি ক্ষিপ্ত হন এবং জোর পূর্বক চায়ের কাপ কেড়ে ঐ শিশুর কপালে ছুড়ে মারেন। এ ঘটনায় শিশু পৃথিবীর কপাল ঝলশে যায়। ঘাতক সুইট এর বাবার নাম সাদু প্রামানিক। তার বাড়ি আড়ানী পৌর এলাকার পিয়াদা পাড়া গ্রামে বলে জানা গেছে।

এদিকে ঘটনার পর-পর স্থানীয় লোকজন সহ শিশুর পিতা মিন্টু হালদার তার শিশু সন্তানকে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের জরুরী বিভাগে নিয়ে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করে নেন এবং চিকিৎসা দিতে থাকেন।

এ বিষয়ে নির্যাতিত ঐ শিশুর পিতা মিন্টু হালদার বাঘা থানা চত্বরে এসে স্থানীয় দু’জন গনমাধ্যম কর্মীর সাথে দেখা হলে তিনি বলেন , আমরা হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ। মুসলমাদের সাথে গোলযোগ করতে চায়না। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ভাবে বসে আপোশ করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। কিন্তু সুইট এর পরিবার রাজী হয়নি। তাই নিরপায় হয়ে ঘটনার তিনদিন পর থানায় এসে একটি অভিযোগ করতে বাধ্য হলাম।

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি) সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনার সত্যতা রয়েছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অক্টোবর ২৫
১৫:৪৩ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]