Daily Sunshine

বাঘায় প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত শিল্পীরা , উপ-সচিব শ্রী রথীন্দ্রনাথ

Share

নুরুজ্জামান,বাঘা : সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ঘরে ঘরে-ঘরে দেবী দুর্গার আগমনী বার্তা। আর ক’দিন পর শুরু হতে যাচ্ছে তাদের ধর্মীয় বড় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এজন্য প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃৎশিল্পীরা। এমনটি অভিমত ব্যক্ত করে প্রতিবারের ন্যায় এবারও নিজ এলাকায় আসার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন বর্তমান সরকারের উপ-সচিব ও বাঘার কৃতি সন্তান শ্রী রথীন্দ্রনাথ দত্ত।
এবারের দুর্গাপূজায় আরো উপস্থিত থাকার সম্মতি জ্ঞ্যাপন করেছেন এই জনপদের মানুষ রাজশাহী বিশ্ব বিদ্যালয় গণযোগাযোগ বিভাগের চেয়ারম্যান শ্রী প্রদীপ কুমার পান্ডে, বাংলাদেশ আ’লীগের তথ্য ও প্রযুক্তি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শ্রী প্রনব কুমার পান্ডে, জাজ সুমন কর্মকার,এই জনপদের জননন্দীত অভিনেত্রী ও লাক্স সুপারষ্টার বিদ্যাসিনহা মীম এবং ঢাকা সরকারি কলেজের অধ্যাক্ষ ড: সুমন কুমার পান্ডে সহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ ।

বাঘা উপজেলা হিন্দু ,বৌদ্ধ ঐক্য খিস্টান পরিষদের সভাপতি শ্রী সুজিত কুমার ওরুপে (বাকু পান্ডে) জানান, রাষ্ট্রীয় কাজে ব্যাস্ত থাকা একজন মানুষ বাঘার কৃতি সন্তান শ্রী রথীন্দ্রনাথ দত্ত। বর্তমান সরকারের উপ-সচিব পদে দায়িত্বে থাকার কারনে তাঁর নিজ এলাকায় আসার সুযোগ খুব কম। তবে বছরে একটিবার শারদীয় দুর্গা উৎসবের সময় তিনি শত ব্যস্ততার মাঝেও নাড়ির টানা নিজ গ্রাম রাজশাহীর বাঘার নারায়নপুরে ছুটে আসেন। এ সময় তাঁকে এক পলক দেখা সহ তার হাত থেকে একখানা কাপড় কিংবা কিছু খাবার পাওয়ায় আসায় অপেক্ষা করেন অসংখ্য হত দরিদ্র পরিবার।
পূজা উৎযাপন কমিটির যুযোগ্য সাধারণ সম্পাদক শ্রী অপুর্ব কুমার সাহা বলেন, ঐদিন শুধু হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যেই উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয় না। অনেক মুসলিম দরিদ্র পরিবারের মাঝেও দেয়া হয় একই উপহার। এ কারনে উপ-সচিব শ্রী রথীন্দ্রনাথ এর জনপ্রিয়তা দিন-দিন বেড়ে চলেছে। তিনি বলেন, প্রতিবারের ন্যায় এবারের দুর্গা উৎসবে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে নিমন্ত্রন করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে উপ-সচিব শ্রী রথীন্দ্রনাথ দত্ত বলেন, আমার ধর্ম মানবতা। আমি এই জনপদের মানুষ হিসাবে প্রতিবছর শারদীয় দূর্গোৎসবে বাড়ী আসার চেষ্টা করি। এরপর এই অঞ্চলের একশ’জন হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষকে অনুদান দিয়ে থাকলে একশ’ দশজন মুসলমানকে দেই। কারণ সকল ধর্মের মানুষকে এক সুতোয় গেঁথে দিয়েছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। আমার জানা মতে, তাঁর এই চিরন্তর বানীকে শ্রদ্ধা জানিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়কে হৃদয়ের মাঝে রেখেছেন তাঁর সু-যোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সর্বদা একটি কথায় বলে থাকেন, ধর্ম যার-যার উৎসব সবার। এ জন্য আমি তাঁর প্রতি কৃতঙ্গতা গভীর শ্রদ্ধা জানায়।

পূজা উৎযাপন কমিটি সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১১ অক্টোবর ষষ্ঠী তিথিতে শুরু হবে এ পূজা। ইতোমধ্যে কাদা-মাটি, বাঁশ, খড়, সুতলি দিয়ে শৈল্পিক শ্রদ্ধায় তিল-তিল করে গড়ে তোলা দেবী দুর্গার প্রতিমা তৈরিতে দিন-রাত ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা কারিগররা।

অক্টোবর ০৪
১০:৪৯ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]