Daily Sunshine

শেরপুরে রিক্সাচালক খুন আটক ৩ জন

Share
মিন্টু ইসলাম (শেরপুর বগুড়া) প্রতিনিধিঃমামলা সূত্রে জানা যায়, ভিকটিম এমরান হোসেন টুটুল(১৬) মামলার প্রধান আসামী মোঃ সেলিম হোসেন (২৫), পিতা- মোঃ আমজাদ হোসেন, সাং- গুয়াগাছি, থানা- শেরপুর, জেলা- বগুড়া  এর বন্ধু। আসামী সেলিম হোসেন ১ লা মে ২০২১ সকাল বেলা সিরাজগঞ্জ জেলার কাজিপুর থানাধীন সোনামুখি বাজারে যায় এবং ভিকটিম টুটুল এর সাথে  ঘুরে বেড়ানোর কথা বলে ৩০০ টাকায় তার ভ্যান ভাড়া করে  এবং ভিকটিম টুটুলকে শেরপুরে নিয়ে আসে।

শেরপুরে আসার পরে নেশা করার কথা বলে অত্র মামলার ঘটনাস্থল শেরপুর থানাধীন চকখানপুর ফাঁকা মাঠে নিয়ে যায়। সেখানে যাওয়ার পরে ভিকটিম টুটুলকে গাম (আঠা) দিয়ে নেশা করায়। তারপর আসামী সেলিম হোসেন ভিকটিম টুটুল এর গলায় গামছা পেচাইয়া হত্যা করে ভিকটিম এর অটোভ্যান নিয়ে যায় এবং পাঁচ হাজার টাকার বিনিময়ে ভ্যানটি বিক্রি করে দেয়। আসামী সেলিম অত্যান্ত চালাক হওয়ার কারনে সে ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিল এবং একেক সময় একেক মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করিতো। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে প্রধান আসামী মোঃ সেলিম হোসেনকে ঢাকা জেলার সাভার থানাধীন হেমায়েতপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করার পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে এবং সে বলে যে, অটোভ্যানটি মোঃ সবুজ আলী শেখ (৩৬), পিতা- মোঃ তোফাজ্জল হোসেন শেখ, সাং- শরীফ সুঘাট, থানা- শেরপুর, জেলা- বগুড়া এর নিকটে ৫ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করেছে। সেই তথ্যের ভিত্তিতে আসামী সবুজ আলী শেখকে গ্রেফতার করা হলে সে জানায় যে, উক্ত অটোভ্যানটি সে  মোঃ মাজেম আলী সরকার (৪৫), পিতা-  মৃত আবেদ আলী সরকার, সাং- নাগেশ্বরগাতী, থানা- ধুনট, জেলা- বগুড়া এর নিকটে ১৩ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করেছে। সেই তথ্যের ভিত্তিতে আসামী মোঃ মাজেম আলী সরকারকে তার বাড়ী থেকে গ্রেফতার করা হয় এবং তার হেফাজত হইতে ভিকটিম টুটুল এর অটোভ্যান উদ্ধার করা হয়।

এব্যাপারে শেরপুর থানার ওসি মোঃ শহিদুল ইসলাম বলেন গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
জুন ২৬
২০:০৫ ২০২১

আরও খবর