Daily Sunshine

বগুড়া শেরপুরে অরবিট ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রোগীকে ভুল রিপোর্ট দিয়ে বিপদে ফেলার অভিযোগ

Share

মিন্টু ইসলাম (শেরপুর বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আব্দুল কাদেরের মালিকানাধীন ডায়াগনোষ্টিক সেন্টারে কর্তৃপক্ষের অবহেলায় ভুল রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্তরা বলছেন প্রিন্টিং মিসটেক হবার কারণে এমনটি হয়েছে।

ভুক্তভোগীরা জানান, শেরপুর শহরের টাউনকলোনী এলাকার হাবিবুল আলম তরুণের স্ত্রী রোজিনা পারভীন (৪০) গত সোমবার (২১জুন) তার রক্তের গ্রুপ (সেরোলজি) পরীক্ষার জন্য হাসপাতাল রোডস্থ ডা. আব্দুল কাদেরের অরবিট ডায়াগনোষ্টিক সেন্টারে যান। সেখানে তার পরীক্ষা শেষে রক্তের গ্রুপ বি-নেগেটিভ বলে রিপোর্ট দেয়া হয়। এরপর আত্মীয়স্বজনেরা বি-নেগেটিভ রক্ত সংগ্রহ করতে থাকনে।

কিন্তু শুক্রবার (২৫জুন) শেরপুর এ্যাডভান্স ক্লিনিকে অপারেশনের রোগীকে রক্ত দিতে গিয়ে বাঁধে বিপত্তি। সেখানকার সেরোলজি পরীক্ষায় তার রক্তের গ্রুপ বি-পজেটিভ বলে জানানো হয়।

এরপর তার আত্মীয়স্বজনেরা পড়েন মহাবিপাকে। পরে আরেকটি পাশের, শাহসুলতান হসপিটাল এন্ড ডায়াগনোষ্টিক সেন্টারে গিয়ে তারা নিশ্চিত হন রোজিনা পারভীনের রক্তের গ্রুপ আসলেই বি-পজেটিভ।

পরে আবারও নতুন করে বি-পজেটিভ রক্ত সংগ্রহ করতে হয়।

ওই নারীর দেবর কারিমুল ইসলাম জানান,শেরপুর উপজেলার একজন দায়িত্বশীল চিকিৎসকের মালিকানাধীন অরবিট ডায়াগনোষ্টিক সেন্টার থেকে এ ধরনের ভুল রিপোর্ট আমরা আশা করিনি। যারা এ ধরনের রিপোর্ট দিয়ে রোগীকে মৃত্যুর ঝুঁকিতে ফেলছেন তাদের শাস্তির দাবী করছি।

জুন ২৫
২০:৩৭ ২০২১

আরও খবর