Daily Sunshine

বাঘার সাবেক মেয়র আক্কাস আলীর দলীয় পদ হারানোর সম্ভাবনা

Share

স্টাফ রিপোর্টার,বাঘা :রাজশাহীর বাঘায় একজন সন্ত্রাসীকে আশ্রয় দিয়েছেন-আরেকজন দলীয় পদধারী সন্ত্রাসী। এমনটি উল্লেখ করে স্থানীয় গনমাধ্যম কর্মীদের কাছে বক্তব্য দিয়েছেন বাঘা উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল।

শনিবার সকালে মনিগ্রাম বাজারে, মনিগ্রাম স্কুল পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও উপজেলা আ’লীগের সহ সভাপতি সমাজ সেবক কাফাতুল্লা সরকারকে মারপিটের প্রধান আসামী আফাজ উদ্দিনকে জেলা আ’লীগের সদস্য ও সাবেক বাঘা পৌর মেয়র আক্কাস আলীর বাড়ীতে আশ্রয় দেয়া এবং সেখান থেকে পুলিশ তাকে আটক করার অভিযোগ তুলে রবিবার(১৩-জুন) দলীয় কার্যালয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে এমনটি অভিমত ব্যাক্ত করেন বাবুল ইসলাম ।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন,উপজেলা আ’লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক যথা ক্রমে-অধ্যক্ষ নছিম উদ্দিন, সিরাজুল ইসলাম মন্টু ও মজিবুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াহেদ সাদিক কবির, উপজেলা আ’লীগের সম্মানীত সদস্য মাসুদ রানা তিলু,বাঘা পৌর সভার প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান পিন্টু, আড়ানী ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, বাউসা ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হোসেন ও আ’লীগ নেতা অধ্যক্ষ শামরুল ইসলাম সহ আরো অনেকে।

বাবুল ইসলাম সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, একজন আদর্শবান নেতা কখনোই সন্ত্রাসীকে তার বাড়িতে আশ্রয়-প্রশ্রয় দিতে পারে না! মনিগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও উপজেলা আ’লীগের সহসভাপতি কাফাতুল্লা সরকারকে পরিকল্পিত ভাবে মারপিট করা হয়েছে। আর এই কাজটি করিয়েছেন সাবেক বাঘা পৌর মেয়র ও রাজশাহী জেলা আ’লীগের সদস্য আক্কাস আলী। আমরা উপজেলা আওয়মী নেতৃবৃন্দ এই ঘটনার তিব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।

তিনি সোমবার (১৪-জুন) দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের জরুরী বর্ধিত সভা ডেকেছেন। ঐ সভায় উপজেলা আ’লীগের সিদ্ধান্তক্রমে আক্কাস আলীকে তাঁর দলীয় পদ থেকে অবাহতি দেয়ার জন্য জেলা আওয়ামী লীগকে চিঠি দেয়া হবে বলেও মন্তব্য করেন।

উল্লেখ্য উপজেলার মনিগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ে বিগত সময় সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন ঐ এলাকার জনৈক প্রভাবশালী আফাজ উদ্দিন। তিনি স্কুলের নামীয় ৮ বিঘা জমির আম বিক্রী এবং নিয়োগ নিয়ে ব্যাপক অনিয়ম-দুর্ণীতি করেন বলে জানান স্থানীয় লোকজন । এ কারণে গত বছর ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নিযুক্ত হন ঐ এলাকার সমাজ সেবক ও উপজেলা আ’লীগের সহ সভাপতি কাফাতুল্লা সরকার। তিনি গত মাসের ১ তারখি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৮ বিঘা জমির আম নিলামে বিক্রীর ডাক দেন। কিন্তু উপযুক্ত দাম না উঠায় স্কুল কমিটির মাধ্যমে ঢাকায় আম চালান দেয়ার সিদ্ধা নেয়া হয়। আর এই ইস্যুতে তাঁকে শনিবার সকালে মারপিট করে আহত করেন সাবেক সভাপতি ও তার লোকজন।

এ বিষয়ে বাঘা পৌর সভার সাবেক মেয়র আক্কাস আলী বলেন, মনিগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি আফাজ উদ্দিন ঐ স্কুলের উন্মুক্ত আম ডাকার সময় সর্বচ্চ দরদাতা ছিলেন। তাকে কমিটির লোকজন আম দেবেনা হেতু নিজেরা বিক্রীর সিদ্ধান্ত নেয়। তবে এই সিদ্ধান্তটি তাকে জানানো হয়নি। পরবর্তীতে কমিটির লোকজন আম পেড়ে চালান দেয়ার বিষয় নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে মারপিটের ঘটনা ঘটে ।

তিনি বলেন, এই ঘটনার পর আফাজ উদ্দিন কিছু লোকজন নিয়ে আমার বাড়ীতে এসেছিল। আমি এ সময় একটি শালিসে রওনা হওয়ার কারেন বাড়ির বাইরে দাড়িয়ে তাদের সাথে কথা বলে বিদায় দেয়। পরে লোকমুখে শুনতে পারি,আমার বাড়ি থেকে ফেরার পথে পুলিশ আফাজকে আটক করেছে।

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় চার জনকে অভিযুক্ত করে একটা মামলা দায়ের করেছেন বর্তমান সভাপতি কাফাতুল্লা সরকার। তাঁর অভিযোগ পেয়ে প্রধান আসামী সাবেক সভাপতি আফাজ উদ্দিনকে বাঘা পৌর সভার সাবেক মেয়র আক্কাস আলীর বাড়ীর সন্নিকট এবং তার সহযোগী শাহিন আলমকে একটি আম বাগান থেকে আটক করেছে পুলিশ। বাঁকি দু’জনকে আটকের চেষ্টা চলছে।

জুন ১৩
১৭:৪৮ ২০২১

আরও খবর