Daily Sunshine

জয়পুরহাটে লকডাউনের প্রথমদিনে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাঠে পুলিশ

Share

জয়পুরহাট প্রতিনিধি : করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়ায় করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে আজ থেকে শুরু হয়েছে টানা সাত দিনের লকডাউন। আর এ বিষয়ে সব ক্ষেত্রে নানা ধরনের বিধিনিষেধ আরোপ করে প্রজ্ঞাপন ও জারি করেছে সরকার। বন্ধ থাকবে সব ধরনের যাত্রীবাহী গণপরিবহন। পাশাপাশি বাজার-মার্কেট, হোটেল-রেস্তোরাঁয় দেওয়া হয়েছে বিধিনিষেধ। তবে ঔষধের দোকান, ঔষধ ও জরুরী খাদ্য পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত যানবাহন, সংবাদপত্রসহ সব ধরনের জরুরি সেবা থাকবে বিধি-নিষেধের বাইরে।
দেশব্যাপী দ্বিতীয় দফা করোনার ঢেউ মোকাবেলায় সরকারের জারি করা নির্দেশনা পালনে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে মাঠে নেমেছে জয়পুরহাট জেলা পুলিশ। গতকাল সোমবার দুপুরে জেলা শহরের পাঁচুরমোড়,বাটার মোড়,পূর্ব বাজার,নতুনহাট এলাকায় মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক করতে বিশেষ অভিযান চালায় জেলা পুলিশ।

জনসমাগমও এড়িয়ে চলছেন না কেউ। এই পরিস্থিতিতে সরকারের দেওয়া নির্দেশনা বাস্তবায়নে এবং জনমানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে আওতায় আনতে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও সতর্ক করেন পুলিশ সুপার।
বিশেষ এ অভিযানে অংশ নেন পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মেদ ভুঞা, জয়পুরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর জাহান।

সানশাইন/ম.আমি

এপ্রিল ০৫
২৩:৪০ ২০২১

আরও খবর

Subcribe Youtube Channel

বিশেষ সংবাদ

কী বন্ধ, কী খোলা জেনে নিন

কী বন্ধ, কী খোলা জেনে নিন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ১৪ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকছে, বন্ধ থাকছে যানবাহনও। বিধি-নিষেধ থাকছে সার্বিক কার্যাবলী ও চলাচলেও। সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। বন্ধ থাকছে: সকল সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস/আর্থিক প্রতিষ্ঠান। সকল প্রকার পরিবহন (সড়ক, নৌ, রেল, অভ্যন্তরীণ

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতির কারণে ১৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তবে এ সময়ে টিকা কার্ড নিয়ে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। সোমবার (১২ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, অতি জরুরি প্রয়োজন

বিস্তারিত