Daily Sunshine

৮দিনেই ভারতীয় ভিসা দেয়া সম্ভব : সঞ্জিব কুমার

Share

স্টাফ রিপোর্টার : আবেদনকারীর দেয়া প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জাল না হলে ও নিয়মতান্ত্রিক পদ্ধতিতে অনলাইন ফর্ম পুরণ করা হলে মাত্র ৮দিনেই ভারতীয় ভিসা পাওয়া সম্ভব বলে জানিয়েছেন রাজশাহীতে নবনিযুক্ত ভারতের সহকারী হাইকমিশনার সঞ্জিব কুমার ভাটি।

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ ) দুপুরে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে সঞ্জিব কুমার ভাটি সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

এসময় তিনি জানান, বাংলাদেশিদের আবেদন করা ভারতীয় ভিসার অধিকাংশই ভুল তথ্য দেয়ার জন্য বাতিল হয়ে যায়। আবেদনকারী যদি সঠিক পদ্ধতিতে ও সঠিক কাগজপত্র সংযুক্ত করে তবে আটদিনেই আবেদনকারীর ভিসা পাওয়া সম্ভব। বর্তমানে রাজশাহীতে প্রতিদিন যে পরিমাণ ভিসা দেয়া হচ্ছে, তাতে সপ্তায় দু-একদিন নয় প্রতিদিন রাজশাহী-কোলকাতা ফ্লাইট পরিচালনা সম্ভব।

ভিসা আবেদনকারী দের সচেতন হবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, জালসনদ বা কাগজপত্র প্রদানসহ ডলারের জাল ইন্ডোর্সমেন্ট তৈরি ও অনলাইন ফর্ম সঠিক পদ্ধতিতে পূরণ না করার কারণেই মূলত ভিসা আবেদন বাতিল করা হচ্ছে। আর এই ভুল তথ্য-কাগজ তৈরিতে ও সাবমিটে এক শ্রেণির দালাল চক্র জড়িত। সাধারণ মানুষ না বুঝেই এ সেই দাললদের দিক নির্দেশনায় অনিয়মগুলো করছেন।

বাংলাদেশকে ভারতের বন্ধুপ্রতীর রাষ্ট্র উল্লেখ করে ভারতীয় এই কূটনীতিক বলেন, উপযুক্ত পর্যটন পরিবেশ তৈরি করতে পারলে ভারত থেকেও মানুষ রাজশাহীতে ঘুরতে আসবে। টুরিজম স্প্রেড বাই মাউথ (পর্যটনের বিকাশ ঘটে আমাদের আলোচনায়)। ভারতীয় সরকার রাজশাহীকে উপযুক্ত পর্যটন নগর করে গড়ে তুলতে সবধরনের সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত। তবে তা মেইটেনেন্স এর দায়িত্ব নিতে হবে স্থানীয় সরকারকে।

তিনি নদী পথে যাতায়াতের গুরুত্ব তুলে ধরে বলেন, আকাশপথ ও স্থলপথ বা ট্রেনপথের চাইতে নদীপথে পণ্য পরিবহনে খরচ তুলনামূলক কম। তাই আমাদের পরিকল্পনা আছে আগামীতে রাজশাহী থেকে ভারতের সাথে নৌপথে যাতায়াত ব্যবস্থার অবকাঠানো নির্মাণের।

এসময় তিনি রাসিক প্রশাসনকে ভারত সরকারের সবধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে বলেন, আগামী তিন বছর হয়তো আমি রাজশাহীতে কাজ করবো। এ সময়ে আমি রাজশাহীসহ বাংলাদেশের উন্নয়নে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত।

এর আগে তিনি রাসিকের মেয়রের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এসময় মেয়র রাজশাহীতে পর্যটনের নানা সম্ভাবনা তুলে ধরে ভারতীয় সরকারের সবধরনের সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানান। পরে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে রাসিকের কর্মকর্তা ও কাউন্সিলরদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন মেয়র।

মার্চ ২৮
১৪:৫৬ ২০১৯

আরও খবর