Daily Sunshine

পাওনা টাকা চেয়ে খুন হলো যুবক, আটক ২

Share

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর বদলগাছীতে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে কাঁচি দিয়ে খুঁচিয়ে মেহেদী হাসান লিওন (৩২) নামে এক যুবক খুন হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার বালুভরা ইউনিয়নের পালশা দক্ষিনপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
আটকরা হলেন, উপজেলার পালশা দক্ষিনপাড়া গ্রামের এছাহাক আলীর স্ত্রী খুরসিদা বেগম ও তার ছেলে স্বাধীন হোসেন (২৫)।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বালুভরা ইউনিয়নের পালশা উত্তরপাড়া গ্রামের মেহেদী হাসান একই গ্রামের দক্ষিনপাড়ার এছাছাক আলীর নিকট ৫০ হাজার টাকায় ১বিঘা জমি বন্ধক নিয়ে চাষাবাদ করছিল। পরবর্তীতে ওই জমির ওপর অতিরিক্ত আরো ৩০ হাজার টাকা নেয় এছাহাক। জমি বন্ধক নেওয়ার সময় মেহেদী হাসান জমির মালিক এছাহাককে বলেছিলেন কখনো বিক্রি করলে তাকে যেন অবগত করা হয়।
ওই জমি মেহেদী হাসানকে না জানিয়ে এছাহাক আলী অন্যত্র বিক্রি করার উদ্যোগ নিয়েছেন। বিষয়টি জানার পর মেহেদী হাসান ও তার ভগ্নিপতিসহ সকাল ১১টার দিকে এছাহাকের বাড়ি যান।
এসময় মেহেদী হাসান জমি বন্ধকের পাওনা টাকা ফেরত চান। এছাহাক আলী টাকা পরে দিবে বলে তাকে সাফ জানিয়ে দেয়। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে তর্কবিতর্কের এক পর্যায়ে এছাহাক তার স্ত্রী, ছেলে আসমাউল হুমায়ন ও ছোট ছেলে স্বাধীনকে ডাক দেন। এর এক পর্যায়ে বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে তারা কাঁচি দিয়ে মেহেদী হাসানের পেটের নিচে আঘাত করে।
মেহেদী হাসানের রক্তক্ষরণ শুরু হলে তাকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর দেড়টার দিকে মেহেদী হাসান মারা যান।
ঘটনার পর এছাহাক ও তা বড় ছেলে আসমাউল হুমায়ন পলাতক রয়েছে। পুলিশ এছাহাক আলীর স্ত্রী খুরসিদা বেগম ও ছোট ছেলে স্বাধীনকে আটক করে থানায় হেফাজতে নেয়।
বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুল ইসলাম নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ঘটনার সাথে জড়িত দুইজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার আরো যারা জড়িত তাদের আটকের চেষ্টা চলছে।

ডিসেম্বর ২৩
০৪:৩৫ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]