Daily Sunshine

রুট-মালানের ব্যাটে ইংল্যান্ডের লড়াই

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: প্রথম ইনিংসে দুই জনের কেউই যেতে পারেননি দুই অংকে। পিছিয়ে পড়া দলকে পথে ফেরাতে ব্যাট হাতে এবার জ্বলে উঠলেন জো রুট ও দাভিদ মালান। তাদের দেড়শ ছাড়ানো অবিচ্ছিন্ন জুটিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে লড়াইয়ে ফিরেছে ইংল্যান্ড।
ব্রিজবেনে অ্যাশেজের প্রথম টেস্টে তৃতীয় দিন স্বাগতিকদের প্রথম ইনিংস থামে ৪২৫ রানে। প্রথম ইনিংসে ১৪৭ রান গুটিয়ে যাওয়া ইংলিশরা এবার ঘুরে দাঁড়িয়ে ২ উইকেটে ২২০ রান নিয়ে দিন শেষ করেছে। এখনও অবশ্য ৫৮ রানে পিছিয়ে তারা। ইংল্যান্ডকে স্বস্তির একটি দিন এনে দেওয়ার কারিগর রুট ও মালানের অবিচ্ছিন্ন জুটি ১৫৯ রানের। ৮০ রান নিয়ে খেলছেন মালান, আর সফরকারী অধিনায়ক অপরাজিত ৮৬ রানে।
এই ইনিংসের পথে রুট গড়েন দারুণ এক রেকর্ড। ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের মধ্যে টেস্টে এক পঞ্জিকাবর্ষে সবচেয়ে বেশি রান এখন তার। চলতি বছর এখন পর্যন্ত এক হাজার ৫৪১ রান করে এই ব্যাটসম্যান ছাড়িয়ে যান ২০০২ সালে মাইকেল ভনের করা এক হাজার ৪৮১ রান। অস্ট্রেলিয়াকে ২৭৮ রানের লিড এনে দেওয়ার পথে বড় অবদান ট্রাভিস হেডের। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে ৪ ছক্কা ও ১৪ রানে ১৪৮ বলে ১৫২ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।
গ্যাবায় এদিন ৭ উইকেটে ৩৪৩ রান নিয়ে খেলতে নামা অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস এগোতে থাকে আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান হেড ও মিচেল স্টার্কের ব্যাটে। তাদের ৮৫ রানের জুটি ভাঙেন ক্রিস ওকস। ৫ চারে ৩৫ রান করে স্টার্ক বড় শট খেলতে গিয়ে ডিপ স্কয়ার লেগ বাউন্ডারিতে ধরা পড়েন। পরে আর বেশিক্ষণ টেকেনি অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস। ন্যাথান লায়নের পর হেডকেও ফিরিয়ে দেন মার্ক উড। ১১২ রান নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামা হেড বোল্ড হলে শেষ হয়ে যায় স্বাগতিকদের ইনিংস।
আড়াইশর বেশি রানে পিছিয়ে থেকে ব্যাটিংয়ে নামা ইংল্যান্ডকে দুর্দান্ত বোলিংয়ে শুরু থেকেই চেপে ধরে অস্ট্রেলিয়া। স্টার্কের করা ইনিংসের ষষ্ঠ বলে ররি বার্নসকে এলবিডব্লিউ দেন আম্পায়ার। রিভিউ নিয়ে বাঁচেন ইংলিশ ওপেনার। পরের ওভারে প্রথম স্লিপে অল্পের জন্য ধরা পড়েননি হাসিব হামিদ। ফিল্ডারের সামান্য সামনে পড়ে বল। জশ হেইজেলউড, স্টার্ক, প্যাট কামিন্সরা নিখুঁত লাইন-লেংথে ভোগাতে থাকেন ইংলিশ ওপেনারদের।
দ্রুত উইকেটও মিলে যায়। কামিন্সের শর্ট ডেলিভারিতে কাট শট খেলতে গিয়ে অ্যালেক্স কেয়ারির গ্লাভসে ধরা পড়েন বার্নস। হামিদকে ২৭ রানে কট বিহাইন্ড করে দেন স্টার্ক। ৬১ রানে ২ উইকেট হারিয়ে তখন আবারও পথ হারানোর শঙ্কায় ইংল্যান্ড। সেখান থেকে হাল ধরেন রুট ও মালান। অস্ট্রেলিয়ার ছন্দে থাকা বোলারদের সামনে সাবধানী ব্যাটিংয়ে এগিয়ে যেতে থাকেন দুইজন।
তাদের ব্যাটে নিরাপদেই ১০৭ রান নিয়ে চা বিরতিতে যায় ইংল্যান্ড। সময়ের সঙ্গে রুট-মালান স্বাভাবিক ব্যাটিং করতে থাকেন। আসতে থাকে রান। ১০৬ বলে ফিফটি করা জুটি শতরান স্পর্শ করে ১৮২ বলে। দারুণ ব্যাটিংয়ে ৮০ বলে ফিফটি তুলে নেন রুট। মালানের পঞ্চাশ আসে ১২১ বলে। পঞ্চমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ায় ফিফটি করলেন মালান। সেঞ্চুরিতে চোখ রেখে এগিয়ে যাওয়া দুই ব্যাটসম্যানের ওপরই এখন ভরসা ইংল্যান্ডের।

ডিসেম্বর ১১
০৪:১৭ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]