Daily Sunshine

শীতার্তদের পাশে রাবির নবজাগরণ ফাউন্ডেশন

Share

রাবি প্রতিনিধি: বছর ঘুরে যখন আবারও শীত কড়া নাড়তে শুরু করেছে। কুয়াশায় ভরে যাচ্ছে এলাকা। কোন যাত্রীছাউনির নিচে কিংবা দরজাভাঙ্গা কোন কুঠুরি থেকে ভেসে আসছে কিছু মানুষের শীতের কাঁপুনির শব্দ।
রাজশাহীতে বরাবরই শীতের প্রকোপ একটু বেশি। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বিভিন্ন জায়গায় প্রায়ই দেখা যায় শীতার্ত মানুষদের প্রতি শীতের নির্মম কশাঘাত। জীর্নশীর্ণ মানুষগুলো পড়ে থাকে স্টেশন বাজারের পুরাতন রেলছাউনিতে, দেখা যায় রাস্তার পাশে আগুন জ্বেলে শীত দূরীকরণে তাদের নানান ব্যর্থ চেষ্টা। কখনো এক টুকরো কাপড় বা কখনো আগুন জ্বালিয়ে শীতের কাছ থেকে নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।
আর এই কনকনে শীতে, শীত নিবারণের চেষ্টার শক্তিকে বাড়িয়ে দিতে এবং কষ্ট লাঘবের জন্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নবজাগরণ ফাউন্ডেশন প্রতি বছরই অসহায়, দুস্থ ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করার উদ্যোগ গ্রহণ করে থাকে। অন্য সবার থেকে ভিন্নভাবে এবং একান্ত অসহায় ও কষ্টে দিনযাপন করছে এমন মানুষদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করে তারা৷ রাজশাহীর অলিতে গলিতে ঘুরে যাদের প্রকৃতভাবেই শীতবস্ত্র প্রয়োজন তাদের হাতেই শীতবস্ত্র তুলে দেয় সংগঠনটি।
প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও শীতার্তদের পাশে দাঁড়াতে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে নবজাগরণ ফাউন্ডেশন। গতকাল রোববার (২৮ নভেম্বর) রাতে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় বিশেষত মন্ডলের মোড়, কাজলা, অক্ট্রয়মোড়, তালাইমারি, ঘোড়ামারা, রেলস্টেশন, রাবির স্টেশন বাজার ও মেইন গেটের মাজারের সামনে নানা জায়গায় কম্বল হাতে ঘুরে ঘুরে অসহায় মানুষদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করে সংগঠনটি।
কম্বল হাতে রেল স্টেশনের ছিন্নমূল একজন চোখে একরাশ ক্লান্তি নিয়ে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া ছেলেমেয়েরা যে আমাদের মতো মানুষদের জন্য এত রাতে কম্বল নিয়ে দেখা করতে আসতে পারে দেখে ভালো লাগলো।
এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ উপাচার্য ও নবজাগরণ ফাউন্ডেশন এর উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. ছাদেকুল আরেফিন মাতিন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও নবজাগরণ ফাউন্ডেশন এর উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. মো. ইলিয়াস হোসেন, অধ্যাপক ড. মনিমুল হক, অধ্যাপক ড. রোখসানা বেগম, সহকারী অধ্যাপক ড. সুলতান মাহমুদ রানা, এবং সহকারী অধ্যাপক সাদেকুল ইসলাম।
নবজাগরণ ফাউন্ডেশন এর উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. ছাদেকুল আরেফিন মাতিন বলেন, প্রতিবছরই নবজাগরণ ফাউন্ডেশন শীতবস্ত্র বিতরণ আয়োজনের অংশ হতে আমি অপেক্ষা করি যাতে নতুন করে মানুষ হিসেবে রাতের অন্ধকারে মানুষের মানবেতর জীবনের সাথে মিশে যেতে পারি।
বর্তমান সভাপতি রাশেদুল ইসলাম জানান, গতানুগতিক ধারার বাইরে সুবিধা বঞ্চিত মানুষদের পাশে দাঁড়ানো নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের অন্যতম উদ্দেশ্য। তাই শীতবস্ত্র বিতরণের এই অনানুষ্ঠানিক আয়োজনও যেন নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের জন্য বড় প্রাপ্তি।
এছাড়াও নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা মণ্ডলীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সহ-সভাপতি সুমাইয়া রহমান কান্তি, সাবেক সভাপতি এনামুল ইসলাম তুহিন ও খালিদ হাসান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শরীফুল ইসলাম, সাবেক সহ-সভাপতি কাজী রতন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রিফাত হোসেনসহ নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের সাবেক ও বর্তমান কমিটির অন্যান্য সদস্যরা।

নভেম্বর ৩০
০৫:৫৯ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]