Daily Sunshine

বুলগেরিয়ায় দুর্ঘটনার পর বাসে আগুন লেগে নিহত ৪৫

Share

সানশাইন ডেস্ক: বুলগেরিয়ায় পর্যটকদের বহনকারী একটি বাস দুর্ঘটনায় পড়ার পর আগুন ধরে গিয়ে আন্তত ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর দিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো। কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, স্থানীয় সময় সোমবার রাত ২টার দিকে বুলগেরিয়ার পশ্চিমাঞ্চলে স্টারমা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
উত্তর মেসিডোনিয়ার একটি ট্র্যাভেল এজেন্সির ওই বাসে মোট ৫২ জন আরোহী ছিলেন। তুরস্কের ইস্তাম্বুলে ছুটি কাটিয়ে বুলগেরিয়া হয়ে তারা উত্তর মেসিডোনিয়ায় ফিরছিলেন বলে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী বুইয়ার ওসমানি জানিয়েছেন। যাদের মৃত্যু হয়েছে, তাদের অন্তত ১২ জন অপ্রাপ্তবয়স্ক। সাতজনকে দগ্ধ অবস্থায় সোফিয়ার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের অবস্থা স্থিতিশীল বলে স্বাস্থ্যকর্মীরা জানিয়েছেন।
বাসটি কীভাবে দুর্ঘটনায় পড়ল তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে আগুন লাগার আগে বা পড়ে বাসটি মহাসড়কের পাশের ব্যারিয়ারে ধাক্কা খায় বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন বুলগেরিয়ার কর্মকর্তারা।
স্থানীয় টেলিভিশনে প্রচারিত ভিডিওতে দেখা গেছে, আগুনে পুড়ে কয়লা হয়ে যাওয়া বাসটি দাঁড়িয়ে আছে সড়কের একেবারে মাঝখানে। বুলগেরিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বয়কো রাশকভ বলেছেন, বাসের ভেতরে যাত্রীদের লাশগুলো পুড়ে প্র্রায় ছাই হয়ে গেছে। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “ভয়ঙ্কর, খুবই ভয়ঙ্কর দৃশ্য। আমি জীবনে এরকম ভয়াবহ দৃশ্য দেখিনি।”
দেশটির অন্তর্র্বতীকালীন প্রধানমন্ত্রী স্টেফান ইয়ানেভ এ ঘটনাকে বর্ণনা করেছেন ‘দারুণ এক বিপর্যয়’ হিসেবে। বুলগেরিয়ার তদন্ত সংস্থার প্রধান বরিসলাভ সারাফভ বলছেন, চালকের ভুলে অথবা যান্ত্রিক জটিলতার কারণে বাসটির এ পরিণতি হয়ে থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন তারা।

নভেম্বর ২৪
০৬:৪২ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]

সর্বশেষ