Daily Sunshine

নাইজেরিয়ায় ২৪ ইসলামপন্থি বিদ্রোহীকে হত্যার দাবি

Share

সানশাইন ডেস্ক: নাইজেরিয়ার উত্তরপূর্বাঞ্চলে চালানো দুটি আক্রমণে ২৪ জন সন্দেহভাজন ইসলামপন্থি বিদ্রোহীকে হত্যা করা হয়েছে বলে দেশটির সেনাবাহিনী জানিয়েছে। মঙ্গলবার নাইজেরিয়ার বিদ্রোহ-বিরোধী টাস্ক ফোর্সের কমান্ডার মেজর জেনারেল ক্রিস্টোফার মুসা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, বর্নো রাজ্যের রাজধানী মাইদুগুরির কয়েক কিলোমিটার দূরে সেনারা বোকো হারামের ১৬ বিদ্রোহীকে হত্যা করেছে।
বিদ্রোহীদের সঙ্গে গোলাগুলির সময় মেশিনগান বসানো দুটি ট্রাক জব্দ করা হয় এবং অপর একটি ধ্বংস করা হয় বলে জানিয়েছেন তিনি। সোমবার রাতে সেনাবাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অনিয়েমা নওয়াচুকউ জানিয়েছেন, নাইজেরিয়া ও ক্যামেরুনের সেনারা যৌথ অভিযানে জঙ্গী গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট ওয়েস্ট আফ্রিকা প্রভিন্সের (আইএসডব্লিউএপি) চার সদস্যকে হত্যা করেছে।
গোষ্ঠীটর জঙ্গিরা বর্নোতে সেনাবাহিনীর একটি অগ্রবর্তী ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।
আরেক ঘটনায় সন্দেহভাজন বিদ্রোহীদের বিমান-বিধ্বংসী কামান বসানো একটি ট্রাক রাস্তায় পেতে রাখা একটি মাইনের ওপর উঠে গেলে বিস্ফোরণে আরও চার জঙ্গি নিহত হন বলে জানিয়েছেন নওয়াচুকউ। নাইজেরিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর সঙ্গে বিদ্রোহীদের লড়াই প্রতিবেশী শাদ ও ক্যামেরুনেও বিস্তৃত হয়েছে।
বোকো হারাম ও তাদের শাখা আইএসডব্লিউএপি এক দশকেরও বেশি সময় ধরে নাইজেরিয়ার সশস্ত্র বাহিনীগুলোর বিরুদ্ধে লড়াই করছে। ত্রিপক্ষীয় এই সংঘাতে এ পর্যন্ত লাখো মানুষ নিহত এবং লাখ লাখ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ১৯৭১, ১৯৭৫, ২০০৪ ও ২০১৪ সালের ঘাতকরা কি এক ও অভিন্ন নয়? এই নাশকতা, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, স্বাধীনতাবিরোধীরা এক ও অভিন্ন। সকল অপরাধীই তার একটা নমুনা রেখে যায়। প্রতিটি ক্ষেত্রেই সেই একই রকম চিহ্ন আমরা দেখি।
মঙ্গলবার চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সম্প্রীতি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, একাত্তর ও পঁচাত্তরের ঘাতকরা দেশের অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে চায়। এই দুষ্কৃতকারী চক্র একটা সময় বেছে নেয়। এই সময়টা তারা বেছে নিয়েছে কারণ, এখন ২০২১ সাল। ২০২৩ সালের শেষ নাগাদ আমাদের জাতীয় নির্বাচন। নির্বাচিত সরকার যখন প্রথম দু-আড়াই বছর পার করে দেয় তারপর থেকেই শুরু হয়ে যায় পরবর্তী নির্বাচনের প্রস্তুতি। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখেই দেশকে অস্থিতিশীল করতে চায় তারা। দেশের অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে চায়। দুষ্কৃতকারীদের প্রতিহত করতে আমাদের অনেক কিছুই করার আছে।
বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, তাদের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবির কোনও ভিত্তি নেই। কারণ, তত্ত্বাবধায়ক সরকার দেশের সর্বোচ্চ আদালত কর্তৃক প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। তারা এখন জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে চায়। কাজেই আমাদের সচেতন হওয়া দরকার। দীপু মনি বলেন, বিএনপি দাবি করছে দেশে গণতন্ত্র নেই। দেশে যদি গণতন্ত্র না থাকে তাহলে তারা গণমাধ্যমে কথা বলার এত সময় পায় কী করে? সরকারি দলের নেতৃবৃন্দকে টেলিভশনে যতটা দেখা যায় তাদেরকেও তেমন বা তার চেয়ে বেশি দেখা যায়।
তিনি বলেন, আমাদের সংবিধানে ধর্ম-বর্ণ-গোত্র নির্বিশেষে সকল মানুষকে সমান অধিকার দেওয়া হয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে নৃশংসভাবে সপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনাকে মিশিয়ে দেওয়া হলো। এর মাধ্যমে আবার সেই পাকিস্তানি আদলে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির উত্থান। যারা স্বাধীনতাবিরোধী ছিল, যুদ্ধাপরাধী ছিল, তারা আবার সমাজ ও রাষ্ট্রের রন্ধ্রে রন্ধ্রে প্রতিষ্ঠিত হলো।
জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, সহ-সভাপতি ডা. জে আর ওয়াদুদ টিপু, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল প্রমুখ।

অক্টোবর ২০
০৫:৪৩ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]