Daily Sunshine

অবশেষে খুললো রাবির হল

Share

স্টাফ রিপোর্টার : করোনা মহামারিতে প্রায় দুই বছর বন্ধ থাকার পর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে। রবিবার সকাল ১০টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে উপাচার্য শিক্ষার্থীদের আনুষ্ঠানিকভাবে বরণ করে নেন। এ সময় তিনি হলে ফেরা শিক্ষার্থীদের হাতে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।
পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল পরিদর্শন করে উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন, আমরা আনন্দিত। দীর্ঘ বন্ধের পর শিক্ষার্থীরা ফিরেছে। তাদের আমরা ফেরাতে পেরেছি। তাদের বরণ করে নিতে আমরা সবধরনের প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। করোনার টিকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কেউ আক্রান্ত হলে আইসোলেশনের জন্য হাসপাতালে শয্যা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ডেডিকেটেড অ্যাম্বুলেন্স ও পর্যাপ্ত অক্সিজেন সংরক্ষণ করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের জন্য ২০ হাজার ৬০০ টিকার বরাদ্দ দিয়েছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন।
দীর্ঘ দিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের যে ক্ষতি হয়েছে সে বিষয়ে উপাচার্য বলেন, করোনা মহামারিতে তৈরি হওয়া একাডেমিক গ্যাপ পূরণ করতে শিক্ষা পরিষদের সভায় আলোচনার মাধ্যমে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।
এ সময় উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া ও অধ্যাপক সুলতান উল ইসলামসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। শিক্ষার্থীদের গোলাপ ফুল, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, চলকেট ও মাস্ক দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়।
হল খুলে দেওয়ায় উৎফুল্ল শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় হলের আবাসিক শিক্ষার্থী আশিকুর রহমান বলেন, অনেক দিন পর মনে হচ্ছে ঘরে ফিরছি। অন্য রকম আনন্দ কাজ করছে। দীর্ঘ বিরতির পর হলে উঠতে পেরে অনেক ভালো লাগছে।
রাবির জনসংযোগ দফতরের প্রশাসক ড. মো. আজিজুর রহমান বলেন, হল গেটে শিক্ষার্থীদের গোলাপ ফুল, মাস্ক, স্যানিটাইজার ও ক্যান্ডি উপহার দিয়ে স্বাগত জানানো হয়। তিনি জানান, শিক্ষার্থীদের হলে অবস্থানের জন্য অন্তত এক ডোজ টিকা গ্রহণ বাধ্যতামূলক। প্রত্যেক হলে ও বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসা কেন্দ্রে আইসোলেশনের রুমের ব্যবস্থা করা হয়েছে। হলে বা ক্যাম্পাসে অবস্থানকালীন শিক্ষার্থীদের সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
প্রসঙ্গত, গত বছরে করোনা মহামারী ছড়িয়ে পড়লে ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল হল। এর আগে বন্ধ করে দেওয়া হয় ক্যাম্পাস।

অক্টোবর ১৮
০৫:০৪ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]