Daily Sunshine

পোরশায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আদিবাসী বৃদ্ধ খুন

Share

পোরশা প্রতিনিধি: নওগাঁর পোরশায় খাস পুকরে বড়শি দিয়ে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে মিনু(৫০) নামের এক আদিবাসী বৃদ্ধ খুন হয়েছেন। নিহত মিনু উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউপির মুরলিয়া আদিবাসী গ্রামের মৃত দুলুর ছেলে। এ ঘটনায় ৩জন স্থানীয় আদিবাসী গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন গোদাড়ুর ছেলে রবিন্দ্র (৩৫), সিয়ালুর ছেলে সম্রাট (৫০) ও সম্রাটের ছেলে স্বপন(৩০)। আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স্রে ভর্তি রয়েছেন।
জানা গেছে, সোমবার সন্ধার আগে মুরলিয়া খাস পুকুরে বড়শি দিয়ে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষে মিনু, রবিন্দ্র, সম্রাট ও স্বপন গুরুতর আহত হন। সন্ধায় তাদেরকে আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স্রে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য সেখান থেকে রাতে মিনুকে রাজশাহী মেডিকেলে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।
এ ঘটনায় রাতেই মুরলিয়া গ্রামের ভবেশের স্ত্রী বিরবতী রানী(৩০), মনার স্ত্রী দুলালী(২৮) ও গণেশের স্ত্রী কালন্তী নামের তিন আদিবাসী নারীকে আটক করেছে পোরশা থানা পুলিশ। এ ব্যাপারে পোরশা থানার অফিসার ইনচার্জ সফিউল আজম খান জানান, আমরা লাশ উদ্ধার করেছি। থানায় একটি মামলা হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও তিনি জানান।

অক্টোবর ০৬
০৫:০৬ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]