Daily Sunshine

প্রয়াত কণ্ঠশিল্পী রেজাউল করিমের শ্রদ্ধায় নিবেদিত সন্ধ্যা

Share

স্টাফ রিপোর্টার: অনুষ্ঠানের শুরুতেই একটা গান বাজানো হলো। ‘কেন কাঁদে হে পরাণ/কি বেদনায় কারে কহি…।’ প্রজেক্টরের পর্দায় কণ্ঠশিল্পী রেজাউল করিমকেও দেখা গেল। তিনি এখন আর নেই। তাই রেজাউল করিমের শ্রদ্ধায় নিবেদিত সন্ধ্যাটি তাঁর গান দিয়েই শুরু হলো। গান শুনে মুদ্ধ হলেন সবাই। গভীর শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সবাই স্মরণ করলেন এই শিল্পীকে।
রেজাউল করিমের শ্রদ্ধায় রোববার সন্ধ্যায় প্রথম আলো রাজশাহী কার্যালয়ে সংগীত সন্ধ্যার আয়োজন করে বন্ধুসভা। বাংলাদেশ বেতার রাজশাহীর তালিকাভুক্ত শিল্পী ছিলেন রেজাউল করিম। রাজশাহীর বাঘা উপজেলার দিঘা গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন তিনি। অভাবের তাড়নায় ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন রেজাউল করিম। গানের পাশাপাশি বাজনাও বাজাতেন। গত ১৪ আগস্ট নাটোরের লালপুর উপজেলায় এক গাছে তাঁর ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়।
নিবেদিত সন্ধ্যায় কণ্ঠশিল্পী রেজাউল করিমকে স্মরণ করে কথা বলেন প্রথম আলোর রাজশাহীর নিজস্ব প্রতিবেদক আবুল কালাম মুহম্মদ আজাদ ও যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ খান মো. রবিউল আলম। তাঁরা বলেন, একজন শিল্পী বিনোদিত করার জন্য বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন। সেই অনুষ্ঠানকে বিশাদে ভরে দিতে একজন শিল্পী কোনভাবেই আত্মহত্যা করতে পারেন না। এটা আমরা বিশ^াস করি না। আমরা শিল্পী রেজাউল করিমের মৃত্যুর সঠিক তদন্ত চাই।
নিবেদিত সন্ধ্যায় সংগীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশনের কণ্ঠশিল্পী সরকার আমিরুল ইসলাম। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকার কমফোর্ট হাসপাতালের জিএম সেলিম সরকার, বাংলাদেশ টেলিভিশনের চট্টগ্রাম কেন্দ্রের জিএম নুরুল আলম পবন, রূপালী ব্যাংক লিমিটেড লক্ষ্মীপুর শাখার ব্যবস্থাপক সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার সেতাউর রহমান খান, তবলা শিল্পী প্রণব দে, লক্ষ্মীপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফারুক হোসেন, সাংবাদিক রিমন রহমান, আলোর পাঠশালার প্রধান শিক্ষক রেজিনা খাতুন, সহকারী প্রধান শিক্ষক রিপন আলী, নাসরিন খাতুন, খাদিজাতুল কোবরা, হাসান ইমাম, আলোর পাঠশালার সভাপতি মাসুদ রানা, প্রথম আলো বন্ধুসভার রাজশাহীর সভাপতি বেলাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক রাহুল, বন্ধুসভার বন্ধু সুকন্যা, মৌ, সৈকত জোয়ার্দার, পল্লব পাল প্রমুখ।

অক্টোবর ০৫
০৫:৩৮ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]