Daily Sunshine

বিএনপি-জামাত পেছন দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসতে চায়

Share

মহিদুল ইসলাম, ঈশ্বরদী: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান বলেছেন, বিএনপি-জামাত পেছন দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসতে চায়। এজন্য তারা গভীর ষড়যন্ত্র করছে। ক্ষমতায় আসতে হলে অবশ্যয় নির্বাচনের মাধ্যমেই আসতে হবে। নির্বাচন ছাড়া অন্য কোনো পথে ষড়যন্ত্রকারী বিএনপি-জামায়াতের ক্ষমতায় আসার কোনো সুযোগ নেই। এই জন্য অপেক্ষা করতে হবে।
আজকে আমরা জামাই আদরে দল করছি। জ¦ালা নেই, যন্ত্রনা নেই, কষ্ট নেই। কিন্তু শেখ হাসিনা এতো আরামে ছিলেন না। বহু ত্যাগ ও কষ্ট স্বীকার করে শেখ হাসিনা একাই ১২টি বছর আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় ধরে রেখেছেন। আর আমরা সবাই দলের সুখ ভোগ করছি। বুধবার দুপুরে ঈশ্বরদী আলহাজ¦ টেক্সাটাইল মিলস উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
আব্দুর রহমান বলেন, বিএনপি এখনও ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। এজন্য তারা বিভিন্ন সময়ে নানা রকম কৌশল গ্রহণ করছে। এক সময় তারা বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্য নিয়ে সারাদেশে তান্ডব চালিয়েছিল। এখন তারা গণ-অভ্যুত্থান করার চেষ্টা করছে। এ জন্য তারেক রহমান বিদেশ থেকে টাকা পাঠাচ্ছে। পাকিস্তানের আইএসআইও টাকা পাঠাচ্ছে। গণ-অভ্যুত্থানের মাধ্যমে শেখ হাসিনা সরকারকে উৎখাত করার গভীর ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। এ দেশে সংবিধান মতে নিরপেক্ষভাবে আগামী সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। জনগণ যাদের ম্যান্ডেট দেবে তারাই ক্ষমতায় আসবে। আর কোনো ষড়যন্ত্র হলে আওয়ামীলীগের কর্মীরা তাদের সকল ষড়যন্ত্রের দাঁতভাঙ্গা জবাব দেবে।
আব্দুর রহমান আরও বলেন, দেশের সকল স্তরের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি দেয়ার জন্য শেখ হাসিনাকে অনেক কাঠখড়ি পোড়াতে হয়েছে। ২১ বার মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে এসেছেন। এই ঈশ্বরদীতেও তিনি হামলার শিকার হয়েছিলেন। তার ট্রেন বহরে বৃষ্টির মত গুলি বর্ষণ করা হয়েছিল।
তারপরও শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে একের পর এক ষড়যন্ত্র করেছেন জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া, এরশাদ, জামাত-শিবির প্রেতাত্মা গোষ্টি। সবশেষ তারেক রহমানের নির্দেশে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট শেখ হাসিনার উপর গ্রেনেড হামলা করা হয়। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মানবঢাল তৈরি করে শেখ হাসিনাকে রক্ষা করেছিলেন। আ.লীগের নেতাকর্মীদের জীবন থাকতে শেখ হাসিনার ক্ষতি হবে না। শেখ হাসিনাই আমাদের প্রেরণা, আমাদের শক্তি।
ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নায়েব আলী বিশ্বাসের সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ফরিদুল আলম ফরিদের সঞ্চালনায় সম্মেলন উদ্বোধন করেন পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রেজাউল রহিম লাল। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল হোসেন।
প্রধান বক্তা ছিলেন পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পাবনা সদর আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য নুরুজ্জামান বিশ্বাস, পাবনা-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড. শামসুল হক টুকু, পাবনা-৩ আসনের এমপি মকবুল হোসেন, পাবনা-২ আসনের এমপি আহমেদ ফিরোজ কবির, পাবনা-সিরাজগঞ্জ আসনের সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য নাদিরা ইয়াসমিন জলি, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া সুলতানা, সদস্য মেরিনা জাহান কবিতা, আব্দুল আওয়াল শামীম, বেগম আক্তার জাহান ও রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার।
স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সূত্রে জানা যায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে একাধিক নেতা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে দুটি প্যানেলে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে মোট চারজনের মধ্যে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। তৃণমুল আওয়ামীলীগ থেকে ঈশ্বরদী পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মেয়র ইছাহক আলী মালিথা সভাপতি এবং সাবেক ভূমিমন্ত্রী প্রয়াত শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর ছেলে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য সাকিবুর রহমান কনক শরীফ সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছেন।
অপর দিকে পাবনা-৪ এমপি নুরুজ্জামান বিশ^াসের দেওয়া প্যানেলে সভাপতি পদে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলী বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক পদে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ মিন্টু প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
সর্বশেষ ২০১৩ সালের ১১ জুন ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন হয়। এ সম্মেলনে আনিসুন্নবী নবী বিশ্বাস সভাপতি ও মকলেছুর রহমান মিন্টু সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এরমধ্যে আনিসুন্নবী বিশ্বাস মারা যাওয়া কমিটির সহ-সভাপতি নায়েব আলী বিশ্বাস দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সম্মেলন চলছে।

সেপ্টেম্বর ৩০
০৬:১৯ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]