Daily Sunshine

এতিম শিশুদের বাঁধনহারা উল্লাসে সঙ্গী হলেন ডিসি মঞ্জুরুল হাফিজ

Share

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন ছিল ২৮ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার। বিশেষ এই দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারি শিশু পরিবারের ৬০ এতিম শিশুকে নিয়ে শিক্ষা সফরের আয়োজন করেন তিনি। দেন নতুন পোশাকও। শিক্ষা সফরের আয়োজনটি করা হয় জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার কানসাট রাজার বাগানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে গড়ে ওঠা ‘বঙ্গবন্ধু লাইভ ম্যাংগো মিউজিয়ামে’।
নতুন পোশাকের ঘ্রাণ আর নতুন কিছু দেখার আনন্দে বাঁধভাঙা উল্লাসে মেতে ওঠে শিশুরা। দৌড়াদৌড়ি, ছুটোছুটি আর নতুনকে জানার উন্মাদনায় মেতে ওঠে শিশুরা। শিশুদের বাঁধনহারা এ উল্লাসের সঙ্গে নিজেকেও মিলিয়ে ফেলেন জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ।
আনন্দ-উল্লাসের ফাঁকে ফাঁকেই গল্পের ছলে শিশুদের কাছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সাথে ঘটে যাওয়া বিয়োগান্তক অর্থাৎ ১৫ আগস্টের কালরাত্রির ঘটনা তুলে ধরেন জেলা প্রশাসক। কোমলমতি শিশুরাও ভালো কিছুর পরশে হয়ে ওঠে একনিষ্ঠ শ্রোতা।
শিক্ষা সফরে অংশ নেন- শিবগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, শিবগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাকিব-আল-রাব্বি, শিবগঞ্জ পৌর মেয়র সৈয়দ মনিরুল ইসলাম, এনডিসি চন্দন কর, মহিলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সায়েরা খাতুন, সরকারি শিশু পরিবারের উপ-তত্ত্বাবধায়ক শাহনাজ পারভীন। সকলেই এই ধরনের আয়োজনের প্রশংসা করেন।
ব্যতিক্রমী এ আয়োজন সম্পর্কে জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ জানান, সরকারি শিশু পরিবারের এতিম শিশুদের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই বললেই চলে। তাই মনে হলো, প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে এই শিশুদের নিয়ে আনন্দ করাই যেতে পারে। সে চিন্তা থেকেই এই শিক্ষা সফরের আয়োজন।
তিনি বলেন, দিনব্যাপী আনন্দ ভাগাভাগি করার পাশাপাশি খেলাধুলা, র‌্যাফেল ড্রসহ শিশুদের মধ্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, পিতা-মাতাকে হারিয়েও নিজের মনোবলকে দৃঢ় করে বাংলাদেশ তথা দেশের জনগণকে উন্নত আধুনিক ডিজিটাল বাংলাদেশসহ নানাবিধ উন্নয়ন সাধন করে পৃথিবীর বুকে বাংলাদেশকে পরিচিত করিয়েছে আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তার জীবনীও শিশুদের কাছে তুলে ধরা হয় এবং সেটা আনন্দের মধ্য দিয়ে।
শিক্ষা সফরের আনন্দ শেষে ঘরে ফেরার পালা। কিছুটা বিষহ্ন হয়ে ওঠে এতিম শিশুদের মন, ক্ষণিকের জন্য। চোখে মুখে আগামীর প্রশান্তির ছবি, হয়তো আবারো হবে আনন্দের শিক্ষা সফর। জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ স্যার হয়তো আগামীতে আবারো নতুন কোনো জায়গায়, অচেনা ভুবনে নিয়ে যাবে তাদের।

সেপ্টেম্বর ৩০
০৬:০৯ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]