Daily Sunshine

অনুপ্রবেশকারীরা সুযোগ খুঁজছে: মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি গঠনে ধীরগতির নেপথ্যে

Share

রাজু আহমেদ : রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সম্মেলনের ৭ মাস পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করেনি সংগঠনটির নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। এনিয়ে দলের মধ্যে নানা ধরণের আলোচনা ও সমালোচনা শুরু হলেও নতুন আংশিক কমিটির নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন ছাত্রলীগে অনুপ্রবেশকারী, সন্ত্রাসী, মাদকসেবী ও চিহ্নিত অপরাধীদের এবারের কমিটিতে ঠাই হবে না। আর এমন সদস্যদের চিহ্নিত করতেই ধীরে চলো নীতি অবলম্বন করছেন নেতৃবৃন্দ।
দলীয় সূত্র মতে, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় মহানগর ছাত্রলীগের সম্মেলন। সম্মেলন শেষে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য নতুন কমিটির নেতৃবৃন্দের নাম ঘোষণা না করেই ঢাকায় ফিরে যান। ২৮ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় সংগঠনের প্যাডে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত নগর ছাত্রলীগের ৬ সদস্যের আংশিক কমটির নাম ঘোষণা করা হয়। আংশিক কমিটিতে সভাপতি হিসেবে নূর মোহাম্মদ সিয়াম, সাধারণ সম্পাদ সিরাজুম মুবিন সবুজ, সহ সভাপতি আরেফিন পারভেজ বন্ধন ও মেহেদি হাসান রিমেল রিগান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাসান রেজা এবং সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে রাসিক দত্তকে দায়িত্ব দেয়া হয়।
রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের একাধিক সদস্যদের সাথে কথা হলে তারা জানান, সম্মেলনের পর থেকে মহানগর ছাত্রলীগের নতুন পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে পদ পেতে ছুটোছুটি করছে অনেক সদস্য। এই কমিটি গঠনের পর পর্যায় ক্রমে থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের কমিটি গঠন করা হবে। সংগঠনকে সাজিয়ে এই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সম্মিলিত ভাবে আগামী নির্বাচন ঘিরে আওয়ামী লীগকে সহযোগীতা করবে, দলের হাতকে শক্তিশালী করতে ভূমিকা রাখবে নগর ছাত্রলীগের সকল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
তবে নতুন কমিটি গঠনে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের পাশাপাশি নগর ছাত্রলীগের নতুন নেতৃবৃন্দও সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। নতুন কমিটিতে যাতে অনুপ্রবেশকারী, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, মাদকসেবী বা এলাকার চিহ্নিত অপরাধিরা জায়গা না পায় সে জন্য সকলে সজাগ দৃষ্টি রাখছে। প্রকৃত ছাত্র ও কিèন ইমেজের ছাত্রলীগের সদস্যদের মধ্য থেকেই নেতৃত্ব বাছাই করা হবে।
দলের একটি পক্ষের দাবি, পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনে এরই মধ্যে একটি খসরা নামের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। তাদের প্রত্যেককে বিভিন্ন ভাবে যাচাই বাছাই করা হচ্ছে। এদিকে নতুন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টির পায়তারা করছে একটি পক্ষ। নগর ছাত্রলীগের সভাপতি সিয়াম ও সাধারণ সম্পদক সবুজের মধ্যকার সুসম্পর্ক এরই মধ্যে সকলের নজর কেড়েছে। কমিটি গঠনের পর থেকে এখন পর্যন্ত দলের প্রতিটি কর্মসূচিতে এই দুই নেতাকে হাতে হাত রেখে একত্রে কাজ করতে দেখা গেছে।
নগর ছাত্রলীগের সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম জানান, ছাত্রলীগ একটি ঐতিহ্যবাহী সংগঠন। সংগঠনে নেতাকর্মীর অভাব নাই। চাইলেই যখন তখন পূর্ণঙ্গ কমিটি দেয়া সম্ভব। তবে এবার কেন্দ্র থেকে কড়া নির্দেশনা রয়েছে। দলে অনুপ্রবেশকারীদের নেতৃত্বে আসতে দেয়া হবে না। একই সাথে যারা সন্ত্রাসী, মাদকসেবী, চিহ্নিত অপরাধি ও দলের মধ্যে ভাঙ্গন ধরাতে চায় এমন কাউকে সংগঠনের সামনের সারিতে আসতে দেয়া হবে না। দ্রুত কমিটি গঠনের নামে এমন কেউ যদি দলে সুযোগ পায় তবে তা হবে আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত। নগর ছাত্রলীগের এই নেতা আরও বলেন, আমরা কাজ করে চলেছি। সিয়াম-সবুজের নেতৃত্বের প্রতি সকলকে আস্থা রাখতে অনুরোধ করেন সিয়াম।

সেপ্টেম্বর ২৪
০৬:২৭ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]

সর্বশেষ