Daily Sunshine

আক্কেলপুরে স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধূর মৃত্যু, স্বামী আটক

Share

আক্কেলপুর প্রতিনিধি: জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে স্বামীর নির্যাতনে জান্নাতুন ফেরদৌসী শিখা (২০) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার সোনামুখী ইউনিয়নের কোলা গণিপুর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই গ্রাম থেকে জান্নাতুন ফেরদৌসী শিখার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জয়পুরহাট আধুনিক হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী রিপন হোসেনকে (২৮) আটক করেছে থানা পুলিশ।
পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বিগত প্রায় দুই বছর আগে উপজেলার কোলা গণিপুর গ্রামের হাবিব হোসেনের ছেলে রিপনের সাথে হলহলিয়া গ্রামের লিটন রাজার মেয়ে জান্নাতুন ফেরদৌসী শিখার বিয়ে হয়। তাদের সংসারে আট মাস বয়সী একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে তাদের পারিবারিক দাম্পত্য জীবনে প্রায় ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকত। এর জের গত ১৯ সেপ্টেম্বর জান্নাতুন ফেরদৌসী শিখা (২০) কীটনাশক পান করেন। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেøক্সে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে ২১ সেপ্টেম্বর বাড়িতে ফিরে যান। বৃহস্পতিবার সকালে তার স্বামী তাকে নির্যাতন করে তাকে হত্যা করেছে বলে খবর পাওয়া যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়।
নিহত জান্নাতুন ফেরদৌসী শিখার বাবা লিটন রাজা বলেন, ‘আমার মেয়ের বিয়ের পর থেকেই জামাই রিপন তার উপর অত্যাচার করে আসতো। তাকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে’।
ইউপি সদস্য আনোয়ারুল হক সরদার আয়নাল বলেন, ‘শুনেছি গত কয়েকদিন আগে রিপন তার স্ত্রীকে বেধরক মারপিট করেছিল। তখন তার স্ত্রী বিষ জাতীয় কিছু খেয়েছিল। এরপর চিকিৎসা শেষে তাকে বাড়িতে রাখা হয়েছিল আজ সকালে শুনি মারা গেছে’।
নিহতের স্বামী রিপন বলেন, ‘আমি আমার স্ত্রীকে মারপিট করিনি। সে আমার সাথে ঝগড়া করে কয়েকদিন আগে বিষ পান করে আত্মহননের চেষ্টা করেছিল। এরপর থেকে সে অসুস্থ ছিল। বৃহস্পতিবার সকালে তিনি মারা যান।
আক্কেলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইদুর রহমান বলেন, ‘এঘটনায় থানায় আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা দায়ের হয়েছে। এঘটনায় স্বামী রিপনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জয়পুরহাট আধুনিক হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সেপ্টেম্বর ২৪
০৬:১৭ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]