Daily Sunshine

ভোট গ্রহণ ইভিএম : রাসিকের ৯নং ওয়ার্ড প্রতিক পেলেন ৫ প্রার্থী

Share

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের উপনির্বাচনকে সামনে রেখে কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতিক বরাদ্দ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। সোমবার দুপুর ১২ টায় রাজশাহী জেলা নির্বাচন অফিসের ৫জন প্রর্থী ও তাদের সমর্থকদের উপস্থিতিতে প্রার্থীদের প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হয়। জুলাই মাসে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কাউন্সিলর বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউন নবী দুদু মারা গেলে এই ওয়ার্ডটির জন্য উপনির্বাচন ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।
উপনির্বাচনের জন্য টিফিন ক্যারিয়ার প্রতিক পেয়েছেন রাসেল জামান, শামীনুর রহমান রিডার রেডিও, একেএম রাশিদুল হাসান টুলু ঠেলাগাড়ি, সোয়েব হাসান বাবু ঘুড়ি এবং সাইফুল্লাহ শান্ত পেয়েছেন করাত প্রতিক। বোয়ালিয়া থানা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা সুষ্মিতা রায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, প্রার্থীদের মধ্যে আন্তরিকতা নজর কেড়েছে। অভিযোগ বা পাল্টা অভিযোগ এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। আমরা আশা করছি ভোট শান্তিপূর্ণ ভাবেই অনুষ্ঠিত হবে।
এর আগে প্রার্থীদের হলফনামা যাচাইবাছাই শেষে রিটার্নিং অফিসার ও অতিরিক্ত আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা আহমেদ আলী শান্তিপূর্ণ পরিবেশে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ করেন। এসময় তিনি প্রার্থীদের নির্বাচনী আইন সম্পর্কে বিস্তারিত জানান এবং নির্বাচনী আইন মেনে চলতে সকলকে নির্দেশ প্রদান করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বোয়ালিয়া থানা নির্বাচন অফিসার সুস্মিতা রায়, বোয়ালিয়া ও রাজপাড়া থানার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ও প্রার্থীদের সমর্থকবৃন্দ।
অনুষ্ঠানে রিটার্নিং অফিসার জানান, প্রতিক বরাদ্দের পর সোমবার থেকেই প্রচার প্রচারণা শুরু করা যাবে। তবে নির্বাচনের ২৪ ঘন্টা আগে অর্থাত ৬ অক্টোবর থেকে নির্বাচনের ফল ঘোষণা না হওয়া পর্যন্ত সব ধরণের প্রচার প্রচারণা ও শোডাউন নিষিদ্ধ থাকবে। সরকারি নীতিমালা অনুসারে ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টার লাগাতে হবে। দেয়ালে কোনো পোস্টার লাগানো যাবে না। দুপুর ২ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত প্রচারণার জন্য মাইক ব্যবহার করা যাবে। একজন প্রার্থী প্রচারণার জন্য একটি মাইক ব্যবহার করতে পারবেন। ভোট কেন্দ্রগুলোতে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী ম্যাজিস্ট্রেট মনিটরিং করবেন। এছাড়া আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা এলাকায় নিয়মিত টহলে থাকবেন।
সরকারি নির্দেশনা অমান্য করলে প্রার্থীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানান রিটার্নিং কর্মকর্তা। এসময় তিনি সরকারি নির্দেশনা মেনে নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য সকল প্রার্থীদের অনুরোধ করেন।
এদিকে প্রতিকে পেয়েই প্রচার প্রচারণায় শুরু করেছেন প্রার্থীরা। নির্বাচন ঘিরে এলাকায় উৎসব বিরাজ করছে। সোমবার দুপুরে প্রতিক বরাদ্দের পর এলাকায় পোস্টার ঝুলাতে শুরু করেছেন প্রার্থীদের সমর্থকরা।
প্রসঙ্গত, আগামী ৭ অক্টোবর রাজশাহী সিট কর্পোরেশনের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ৮ হাজার ৯৩৭ জন ভোটার রয়েছে এই ওয়ার্ডটিতে। ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৪টি। প্রতিটি কেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে জুলাই মাসে ওয়ার্ডটির কাউন্সিলন বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউন নবী দুদু চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

সেপ্টেম্বর ২১
০৬:২৫ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]