Daily Sunshine

পবা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ৪৭ বছর পর চালু হলো সিজারিয়ান

Share

স্টাফ রিপোর্টার: পবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর ইতিহাসে রচিত হলো এক নতুন অধ্যায়। আর সেটা হলো প্রথমবারের মতো সিজারিয়ান সেকশন। বুধবার এই কমপ্লেক্সে ৪৭ বছর পর এই সিজারিয়ান সেকশনটি চালু হলো।
এরআগে এলাকার প্রসূতিদের সিজারিয়ানের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ নগরীর বিভিন্ন ক্লিনিকে আসতে হতো। এতে করে সেবার চেয়ে অনেক সময়ে অর্থের অপচয় বেশী হতো। যাতায়াতে ব্যাপক দুর্ভোগে পড়তেন প্রসূতি মায়েরা। এখন থেকে এই কমপ্লেক্সেই সিজারিয়ান অপারেশন সম্পন্ন হবে।
জানা গেছে, পবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ১৯৭৪ ইং সালে স্থাপিত হয়। এটি রাজশাহী জেলার পবা উপজেলার হুজরীপাড়া ইউনিয়নে দারুশা বাজার এলাকায় অবস্থিত। বর্তমানে ৩১ শষ্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৫০ শষ্যার উন্নতিকরন প্রক্রিয়াধীন আছে। এরপরেও প্রসূতি মায়েরা সিজারিয়ান সেবা থেকে বঞ্চিত হয়ে এসেছেন। এখন থেকে এই কমপ্লেক্সে প্রসূতি মায়েরা সিজারিয়ান সেবা পাবেন।
বুধবার প্রথমবারের মত দারুশা গ্রামের অর্জুন চন্দ্র ঘোষের মেয়ে কুমারী অন্তরা রাণী ঘোষের সিজারিয়ান করা হয়। ডাক্তার ও অন্তরার স্বামী পূলক কুমার অপূর্ব বলেন, মা ও সন্তান দু’জনই সুস্থ্য আছেন। এই অপারেশনের নেতৃত্বে ছিলেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের গাইনী ও অবস কনসালটেন্ট ডা. নিশাত আনাম বর্ণা, সাথে ছিলেন গাইনী ও অবস বিশেষজ্ঞ ডা. খন্দকার মাহবুবা জান্নাত এবং আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শামসুন নাহার। এনেস্থিসিয়ার দায়িত্বে ছিলেন এনেস্থিসিয়া কনসালটেন্ট ডা. খিজির হোসেন। সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সার্জারি কনসালটেন্ট ডা. মো: আনোয়ারুল হক ও মেডিসিন কনসালটেন্ট ডা. মো: আব্দুল বাসেত।
হুজুরীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা হিসেবে ডা. রাবেয়া বসরী দায়িত্বগ্রহণের পর থেকে ক্রমান্বয় উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। তাঁর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় তিলে তিলে গড়ে ওঠা ওটি কমপ্লেক্স আজ সম্পন্ন হয়েছে’। তিনি এই এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের স্বপ্নপূরণ হওয়ায় দুর্দান্ত টিমওয়ার্কের সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন। ‘উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা হিসেবে ডা. রাবেয়া বসরী বলেন, অনেক প্রসূতি মাতা অর্থের অভাবে শহরে সিজারিয়ান করতে পারতেন না। এলাকার মানুষের সেবার চিন্তা করে ও তাদের প্রাপ্য অধিকারের বিষয়টি নিশ্চিত করতে এই সেকশনটি চালু হলো। তিনি বলেন এ কাজের জন্য রাজশাহী জেলার সিভিল সার্জন ডা. মো: কাইয়ুম তালুকদারের অনুপ্রেরণা ও দিকনির্দেশনায় এই কার্যক্রম শুরু করতে পেরেছি। তার প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। এছাড়াও তিনি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন পবা-মোহনপুর আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন ও পবা উপজেলা পরিষদের প্রতি। যাদের সার্বিক সহযোগিতায় গড়ে উঠেছে পবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আধুনিক ওটি কমপ্লেক্স।

সেপ্টেম্বর ১৬
০৬:৪৪ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]