Daily Sunshine

প্রতিবন্ধীরাও জনসম্পদে পরিণত হবে: এমপি আয়েন

Share

স্টাফ রিপোর্টার: উন্নতির মানদণ্ডে আমরা এগিয়ে চলেছি। আমাদের আরও অনেক দূর যেতে হবে। বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মানুষদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য প্রয়োজন দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন। তাদের প্রতিবন্ধী হিসেবে নয়, দেখতে হবে মানুষ হিসেবে। শুক্রবার পবার শান্তির নীড় শিশু সেন্টারে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের অধিকার ও সুরক্ষা বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, পরিবার থেকে শুরু করে সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে তাদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা করতে হবে। তাদের জন্য আলাদা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কর্মক্ষেত্র তৈরি করতে হবে। যে যেই কাজে পারদর্শী, তাকে সেই কাজে লাগাতে হবে। আর ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত করার পরিকল্পনা মাথায় রেখে সরকার প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের পূনর্বাসনে কাজ করছে। দেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৭ শতাংশ প্রতিবন্ধী। তাই টেকসই উন্নয়নের বিভিন্ন পর্যায়ে বিপুল এই জনগোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিত করা জরুরি। প্রতিবন্ধীরা পরিবার, সমাজ কিংবা রাষ্ট্রের গলগ্রহ নয়, নয় করুণার পাত্র, এই পৃথিবীতে তাদেরও কিছু দেওয়ার আছে- যদি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আমরা তাদের গড়ে তুলতে পারি। প্রতিবন্ধীরা জনসম্পদে পরিণত হবে। শেষে তিনি রাসিকের রাস্তা থেকে লরেন্স মন্ডলের বাড়ি হয়ে শান্তির নীড় শিশু সেন্টারে যাওয়ার প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের চলাচল বান্ধব রাস্তা নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন।
ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ পবা এপি ও রাজশাহী ধর্ম প্রদেশের আয়োজনে ধর্ম প্রদেশের বিশপ জের্ভাস রোজারিও’র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন হড়গ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, ধর্ম প্রদেশের ভিকার জেনারেল ফাদার ইম্মানুয়েল কানন রোজারিও, তপন ফিলিপ রোড্রিক্স। পবা এপি’র প্রোগ্রাম অফিসার লরেন্স মন্ডলের পরিচালায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন রাজশাহী এপিসি’র এপিসিএম সেবাস্টিয়ান পিউরীফিকেশন ও স্নেহ নীড়ের পরিচালক সি. দিপিকা পালমা।
উপস্থিত ছিলেন পবা এপি’র প্রোগ্রাম অফিসার ডেভিড বাসকে, রতন ভৌমিক, রোজী হালদারসহ ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ, জিও ও এনজিও প্রতিনিধি, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু, অভিভাবক ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। এরআগে শিশুদের চিত্রাংকন, দড়ি লাফানো প্রতিযোগিতা ও ক্যারাত প্রদর্শণ অনুষ্ঠিত হয়।

সেপ্টেম্বর ১১
০৫:৪২ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]