Daily Sunshine

নিজেদের সেরা ভাবলেই বিপদ, বললেন মেসি

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: তরুণ-অভিজ্ঞদের মিশেলে গড়া আর্জেন্টিনার বর্তমান দলটিকে ঘিরে প্রত্যাশা অনেক। গত দুই বছরে ধারাবাহিকভাবে উন্নতি করেছে দলটি, তাদের খেলার ধরনে আছে আত্মবিশ্বাসের ছাপ। অনেক প্রতীক্ষার পর বড় একটা সাফল্যও মিলেছে। তবে আত্মতুষ্টিতে ভোগার কোনো সুযোগ দেখছেন লিওনেল মেসি। চূড়ায় পৌঁছে গেছি, আমরাই সেরা-এমনটা ভাবলেই বরং বিপদের শঙ্কা দেখছেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক।
কোপা আমেরিকা-২০১৯ এর সেমি-ফাইনাল থেকে হতাশাজনক বিদায়ের পর থেকেই মূলত আর্জেন্টিনা দলে উন্নতির আভাস মিলতে শুরু করে। দারুণ ছন্দে এগিয়ে চলার পথে জুন-জুলাইয়ে হওয়া কোপা আমেরিকায় অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয় তারা; শেষ হয় আন্তর্জাতিক ফুটবলে দেশটির ২৮ বছরের শিরোপা খরা।
২০১৯ কোপার শেষ চারে ব্রাজিলের বিপক্ষে হারের পর আর ওই তেতো স্বাদ পায়নি আর্জেন্টিনা। দুই বছরের সফল এই সময়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের দুইবার হারিয়েছে তারা। এর মধ্যে গত জুলাইয়ে সবশেষ কোপা আমেরিকার ফাইনালে নেইমারদের তাদেরই মাটিতে হারিয়ে শিরোপা উৎসব করে লিওনেল স্কালোনির দল। লাতিন আমেরিকার চ্যাম্পিয়নের বেশে এ মাসের শুরুতে প্রথম খেলতে নেমে ভেনেজুয়েলাকে ৩-১ গোলে হারায় আর্জেন্টিনা। তিন দিন বাদে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের পরের রাউন্ডে আবারও ব্রাজিলের মুখোমুখি হয়েছিল তারা; তবে ব্রাজিলের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিতর্কিত হস্তক্ষেপে ম্যাচটি শুরুর পরপরই পণ্ড হয়ে যায়।
চলতি আন্তর্জাতিক সূচির শেষ দিনে বলিভিয়ার মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোর সাড়ে পাঁচটায় শুরু হবে ম্যাচটি। এই ম্যাচের আগে বুধবার ইএসপিএনকে দেওয়া এক দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে নিজের ভাবনা জানান মেসি। তারই এক পর্যায়ে উন্নতির ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে কী করা উচিত, কী না-তা নিয়ে সতীর্থদের সতর্ক করলেন তিনি।
“আমরাই সেরা, এমনটা আমরা বিশ্বাস করি না। আমাদের অবশ্যই বুঝতে হবে যে, আমরা সেরা নই। শান্তভাবে, বিনয়ের সঙ্গে আমাদের কাজ করে যেতে হবে এবং সবসময় সেরাটা দিতে হবে। অনেকগুলো ভালো দল আছে যারা চ্যাম্পিয়ন হতে চায় এবং সমানতালে লড়াই করতে চায়।” সময়ের সেরা দুই ফুটবলারের একজন মেসিকে নিয়ে ২০১৪ সালের বিশ্বকাপ ও এরপর টানা দুই বছরে দুটি কোপা আমেরিকার ফাইনালে উঠেও খালি হাতে ফিরেছিল আর্জেন্টিনা। বারবার শিরোপার মঞ্চে গিয়ে ব্যর্থ হওয়ায় কড়া সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার। বললেন সেই সময়ের কথাও।
“সাংবাদিকদের একটা অংশ আমাদের ব্যর্থ হিসেবে চিহ্নিত করেছিল। বোঝাতে চেয়েছিল, আমরা নাকি আর্জেন্টিনার জার্সি পরার গর্ব অনুভব করি না এবং জাতীয় দলে আমাদের আর খেলা উচিত নয়। আমরা আমাদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেছি এবং চ্যাম্পিয়ন হয়েছি-একটা বিশ্বকাপ কিংবা একটা কোপা আমেরিকা জেতা অনেক কঠিন।”
“আসল কথা হলো, সবকিছু ভুলে এগিয়ে যাওয়া। যদি কিছু করা সম্ভব হয়নি তো হয়নি। বিশ্বকাপের ফাইনালে ও দুটি কোপা আমেরিকার ফাইনালে ওঠাও কম কথা নয়।” বিশ্বকাপ বাছাইয়ে এখন পর্যন্ত সাত ম্যাচ খেলে চার জয় ও তিন ড্রয়ে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে আর্জেন্টিনা। সমান ম্যাচে সবগুলো জিতে ২১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ব্রাজিল।

সেপ্টেম্বর ১০
০৫:৫৮ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]