Daily Sunshine

ডব্লিউএইচও’র অনুমোদন পেলে তখন ১২ বছর বয়সীদের টিকা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

Share

সানশাইন ডেস্ক: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেলে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান তিনি।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা, টিকা যাদেরকে দেওয়া সম্ভব সকলকেই দিতে হবে। ১২ থেকে ১৭ বছরের যারা আছেন, তাদেরকেও টিকা দেওয়া হবে। “কিন্তু শর্ত আছে। ডব্লিউএইচও’র অনুমোদন আমাদের পেতে হবে। আমাদের টেকনিক্যাল কমিটির অনুমোদনও পেতে হবে। যার অপেক্ষায় আমরা আছি।”
১২ বছর বয়সী শিশুর সংখ্যা ‘অনেক বেশি’ মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, “আমাদের সেই সংখ্যায় টিকাও হাতে থাকতে হবে। কাজেই সে টিকার ব্যবস্থা আমরা করছি এবং ডব্লিউএইচওর অনুমোদন সাপেক্ষে আমরা এ টিকাগুলো দিতে পারব। “আমরা ডব্লিউএইচওর কাছে অলরেডি আবেদন করেছি, বলেছি এ বিষয়ে একটি সিদ্ধান্ত আমাদেরকে দেওয়ার জন্য। আমরা সিদ্ধান্ত পেলে তখন কার্যক্রম করতে পারব, সে অপেক্ষায় এখন আমরা আছি।”
এখন যেসব টিকা আছে তার কোনোটাই ১২ বছরের কম বয়সীদের দেওয়া যায় না। কেবল ফাইজার ও মডার্নার টিকা ১২ বছরের বেশি বয়সীদের দেওয়া যায়। অন্যসব টিকা দিতে হয় ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের। বর্তমানে ২২টি দেশে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়া হলেও ডব্লিউএইচও এখনও আনুষ্ঠানিক অনুমোদন দেয়নি জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “এটা যে-যে দেশে দিচ্ছে তারা নিজেদের দেশে দিচ্ছে, নিজেদের মতো করে এবং নিজেদের আইন অনুযায়ী।”
ডব্লিউএইচওর অনুমোদন পেলে বাংলাদেশে কোন টিকা দেওয়া হবে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, “যে সব দেশে দেওয়া হচ্ছে, ফাইজার এবং মর্ডানার টিকাটাই দেওয়া হচ্ছে। যে সমস্ত টিকা ডব্লিউএইচও ১২ থেকে ১৭ বছরের বয়সী ছেলেমেয়েদেরকে দেওয়ার অনুমতি দেবে, আমরা সেই টিকাগুলোই দেব। “গতকাল একটি মিটিং হয়েছে, যেখানে স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ইতোমধ্যে শিক্ষকদেরকে টিকা দিয়েছি, অনেক ছাত্রকে দেওয়া হয়েছে। মেডিকেল কলেজের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদেরকে আমরা টিকা দিয়েছিলাম।”
রোববার আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক শেষে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী ১৮ বছরের বেশি বয়সীয়দের টিকা দেওয়ার কার্যক্রম চলছে। ১২ বছর বয়সীদেরও টিকার আওতায় আনতে কাজ করছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। টিকা দেওয়ার কার্যক্রম এ মাস থেকে আরও ‘বেগবান’ হবে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “এ মাসে প্রায় আড়াই কোটি টিকা আমরা পাব। এটা একদম কনফার্ম মোটামুটি। আড়াই কোটি টিকা সারাদেশে বিভিন্ন পর্যায়ে আমরা দেব।”
সংক্রমণ কমে যাওয়ায় হাসপাতালগুলোতে এখন শয্যা খালি রয়েছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালে ১৭ হাজার বেড ছিল, এখন সেখানে ১২ থেকে ১৪ হাজার বেড সারাদেশ খালি এবং ঢাকায় ৭৫ শতাংশ খালি আছে। করোনা সংক্রমণ কমে যাওয়ায় এগুলো খালি হয়েছে।”

সেপ্টেম্বর ০৭
০৬:১২ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]