Daily Sunshine

যাদের সাথে এক প্লেটে খাওয়া কই তারা: পরীমণি

Share

সানশাইন ডেস্ক: জীবনের কঠিনতম সময় পার করছেন চিত্রনায়িকা পরীমণি। টানা প্রায় এক মাস কারাগারে ছিলেন। এই সময়ে তিনি চিনেছেন তার আশপাশে থাকা মানুষগুলোকে, উপলব্ধি করেছেন তার আসল শুভাকাঙ্ক্ষী কারা। কারাগার থেকে বের হয়েই এক বার্তায় তোলপাড় করে দিয়েছেন নায়িকা। তার হাতের তালুতে মেহেদিতে লেখা ছিল, ‘ডোন্ট লাভ মি বিচ’।
কাদেরকে উদ্দেশ্য করে এই বাক্য লিখেছেন পরীমণি? তিনি জানালেন, যারা তার সুসময়ে পাশে ছিল, কিন্তু দুঃসময়ে অচেনা হয়ে গিয়েছে, তাদের উদ্দেশ্যেই এই বার্তা। পরীর ভাষ্য, ‘যারা দুমুখো সাপ, তাদের বলেছি, ডোন্ট লাভ মি মিচ।’ তারা কারা? তাদেরকে চিনতে পেরেছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে পরীমণি বলেন, ‘অবশ্যই আমি তাদেরকে চিনে ফেলেছি। তাদের অন্তরে ভালোবাসা নেই। তারা মুখে মুখে বলে- লাভ ইউ। তাদের বলেছি, ভালোবাসা দরকার নেই। তারা যেদিন বিপদে পড়বে, বুঝবে। যাদের নিয়ে গলায় গলায় থাকা, একপ্লেটে খাওয়া কই তারা? আমি চলে এসেছি, তারা এখন আবার ওয়েলকাম বলছে। আমি চিনেছি কারা শত্রু, কারা মিত্র।’
কারাগারে থাকার সময়টাকে নিজের সবচেয়ে দীর্ঘ দুঃস্বপ্ন মনে করছেন পরীমণি। তিনি বলেন, ‘মনে হচ্ছে দুঃস্বপ্ন থেকে বের হলাম। আমার এই খারাপ স্বপ্নের মেয়াদ ছিল ২৭ দিন! এটা দীর্ঘ খারাপ স্বপ্ন। দুঃস্বপ্ন ভেবেই এটা রাখতে চাই। আমি কোনোভাবেই ভেঙে পড়তে চাই না। এই দুঃস্বপ্ন অল্পতে বলা যাবে না। তবে আমি পরে অবশ্যই বলব।’
গ্রেফতার হওয়ার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় পরীমণিকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল। অনেকেই তাকে গালিগালাজ করেছেন, খারাপ মন্তব্য করেছেন। ওই বিষয়ে পরীমণি বলেন, ‘যারা ব্যক্তিগতভাবে আমাকে চেনে না, তাদের গালি আমার গায়ে লাগবে না। রাস্তার কেউ আমাকে অপদস্ত করলে আমি অপদস্ত হয়ে যাব না। কিন্তু যারা আমাকে চিনেও গালি দিয়েছে তাদের গালি গায়ে লেগেছে।’
দ্রুত কাজে ফেরার কথাও জানিয়েছেন পরীমণি। ধাক্কা সামলে ঠিকই ঘুরে দাঁড়াবেন, এমন আত্মবিশ্বাস তার হৃদয়ে। বললেন, ‘যত দ্রুত সম্ভব শুটিংয়ে ফিরব। হাতে জমে থাকা কাজগুলোর ব্যাপারে দ্রুত পরিচালকদের সঙ্গে আলাপ করব। ক্যামেরার সামনে যত দ্রুত ফিরতে পারব, ততই শান্তি ফিরে পাব।’ উল্লেখ্য, টানা ২৭ দিন থানা হাজত ও কারাগারে কাটানোর পর বুধবার কাশিমপুর কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন পরীমণি। বর্তমানে তিনি তার বনানীর বাসায় অবস্থান করছেন।

সেপ্টেম্বর ০৩
০৫:৪৯ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]