Daily Sunshine

এনজিওগ্রাম ফি মওকুফ করার পরও ক্যাথ ল্যাবে টাকা নেয়ার অভিযোগ

Share

স্টাফ রিপোর্টার : এনজিওগ্রাম ফি শতভাগ মওকুফ করার পরও রাজশহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যাথ ল্যাবে জিম্মি করে বিনা রসিদে ফি বাবদ ২০০০/- টাকা আদায় করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
জানা গেছে, বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জের সদ্য মৃত জসিম উদ্দিনের পুত্র মোঃ জারজিস নামের একজন ছাত্র হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন তার মায়ের এনজিওগ্রাম করার জন্য ওষুধ বাদে ফি মওকুফের আবেদন করলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক শতভাগ মওকুফ করার আদেশ দেন। কিন্তু গত শনিবার রোগীকে ক্যাথ ল্যাবে নিয়ে যাওয়া হলে জনৈক এবাদত তার কাছে ২০০০ টাকা দাবী করেন। এ সময় জারজিস ফি মওকুফের অনুমোদন কপি দেখালেও তাতে কর্ণপাত না করে টাকা না দিলে এনজিওগ্রাম করা হবেনা বলে সাফ জানিয়ে দেয়া হয়। ফলে বাধ্য হয়ে জারজিস ২০০০ টাকা দেন। কিন্তু এর জন্য তাকে কোন রসিদ দেয়া হয়নি।
জারজিস বিষয়টি তার স্থানীয় অভিভাবক বড় বোনের শশুর বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সিনিয়র সাংবাদিক শফিকুল ইসলামকে জানালে তিনি কিছুক্ষণের মধ্যেই উপস্থিত হয়ে টাকা নেয়ার বিষয়টি এবাদতকে জানালে তিনি ২০০০ টাকা ফেরত দিয়ে ফি মওকুফের অনুমোদনপত্রটি তাকে দেখানো হয়নি বলে জানান। তা হলে টাকা নেয়ার রসিদ দেননি কেন জানতে চাইলে এবাদত নিশ্চুপ থাকেন। পরে ভক্তেভোগেী জারজিস রামেক হাসপাতালের পরিচালক বরাবর রোববার একটি লিখিত অভিযোগ করেন।
লিখিত অভিযোগপত্রে তিনি আরো বলেছেন, ক্যাথ ল্যাবের কর্মচারীরা একটা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে রোগীর স্বজনদের জিম্মি করে তাদের কাছে থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায় করে তা ভাগ বাটোয়ারা করে নেয়। যেসব ওসুধ কিনতে বলা হয় তাও তারা সব ব্যবহার না করে অন্য রোগীর কাছে তা বিক্রি করে। কারো কারো কাছে ০৮/১০হাজার টাকা নেয়া হলেও রসিদ দেয়া হয় না। রসিদ দেয়া হলেও কম টাকার দেয়া হয়। এনজিওগ্রাম করার পরে কোন সমস্যা থাকলে রোগীকে ওই অবস্থায় রেখে স্বজনদের ডেকে বিভিন্ন ভাবে রিং পরানোর জন্য প্রলুব্ধ করার বিষয়টি একবারে ওপেনসিক্রেট। এই অপকর্মের ফলে হাসপাতালের সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে বলে উল্লেখ করে তিনি (জারজিস) তদন্তের মাধ্যমে এবাদতসহ দুর্নীতিবাজ অন্যান্য কর্মচারীকে শনাক্ত করে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানান। লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে কি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে তা এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জানা যায়নি।

আগস্ট ৩১
০৬:১৩ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]