Daily Sunshine

নগর যুবলীগ নেতার শিবির সম্পৃক্ততা খুঁজতে কমিটি

Share

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী মহানগর যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক মাহমুদ হাসান খান ইতুর শিবিরের সঙ্গে সম্পৃক্ততা আছে কি না তা খুঁজতে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সভাপতি রমজান আলী ও সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন বাচ্চু পাঁচ সদস্যের এই কমিটি গঠন করেছেন।
কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে, নগর যুবলীগের সহ-সভাপতি আমিনুর রহমান খান রুবেল। অন্য সদস্যরা হলেন- যুগ্ম সম্পাদক মনিরুজ্জামান খান, সাংগঠনিক সম্পাদক মুকুল শেখ, প্রচার সম্পাদক মাজেদুল আলম শিবলী এবং আইন বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজ কবির রেজা। আগামী ২০ আগস্টের মধ্যে তাঁদের লিখিত প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার রাতে নগর যুবলীগের এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, নগর যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক মাহমুদ হাসান খান ইতুর শিবিরের সঙ্গে সম্পৃক্ততা এবং ইয়ানত দেওয়া সংক্রান্ত একটি সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে। এতে যুবলীগের সকল সদস্য বিব্রত। মহানগর যুবলীগের ভাবমূর্তিও ক্ষুণ্ন হয়েছে। তাই বিষয়টির সত্যতা জানার জন্য এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটির প্রতিবেদন পাবার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।
সম্প্রতি রাজশাহীতে ইসলামী ছাত্রশিবির লেখা চাঁদা আদায়ের কয়েকটি রশিদ ছড়িয়ে পড়েছে। এতে বিভিন্ন অংকের টাকা দাতার নাম হিসেবে যুবলীগ নেতা ইতুর নাম রয়েছে। ১৯৯৯ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত তারিখ লেখা এসব রশিদে। ফলে যুবলীগের নেতাকর্মীদের কেউ কেউ বলছেন, ইতুর শিবির সম্পৃক্ততা রয়েছে। তিনি এখনও শিবিরকে চাঁদা দেন।
অবশ্য গত বুধবার সংবাদ সম্মেলন করে সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ইতু। তিনি দাবি করেছেন, এসব রশিদ ভূয়া। তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। ইতু ২০১০ সালে নগর ছাত্রলীগের উপ-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক হন। এরপর ২০১৬ সালে গঠিত কমিটিতে তিনি নগর যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক হন।

আগস্ট ১৪
০৫:৫০ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]