Daily Sunshine

স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ নারীর হাসপাতালে মৃত্যু

Share

স্টাফ রিপোর্টার, জয়পুরহাট: জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে পারিবারিক কলহের জেরে স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ গৃহবধূ মঞ্জিলা খাতুন (২৮) ঘটনার ১১ দিন পর গত শুক্রবার বিকেলে ঢাকায় শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে তিনি মারা যান। নিহত মঞ্জিলা খাতুন জয়পুরহাট সদর উপজেলার বানিয়াপাড়া গ্রামের আব্দুস সবুরের মেয়ে। এ ঘটনায় তার স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
নিহতের পরিবার ও মামলার বরাত দিয়ে ক্ষেতলাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিরেন্দ্রনাথ মন্ডল জানান, প্রায় ৫ বছর আগে ক্ষেতলাল উপজেলার রোয়ার গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে শারফুল ইসলাম রনির সঙ্গে বিয়ে হয় মঞ্জিলার। বিয়ের পর থেকেই তাদের পারিবারিক কলহ লেগেই ছিল। দাম্পত্য কলহের জেরে গত ২৬ জুলাই দুপুরে নিজ বাড়িতে মঞ্জিলার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন স্বামী শারফুল।
ওসি আরো জানান, ওই দিন ঘটনার পর প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। পরে তার শাররিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকায় শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করেন। সেখানে ১১ দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।
পুলিশ স্বামী শারফুল ইসলাম রনিকে গ্রেপ্তার করেছে। এ ব্যাপারে নিহতের বাবা আব্দুস সবুর বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

আগস্ট ০৮
০৪:৪০ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]