Daily Sunshine

বুমরাহ-শামির ছোবলে নীল ইংল্যান্ড

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: উইকেটে ঘাসের ছোঁয়া, দিন জুড়ে মিলল সুইং-বাউন্স। পেস বোলিংয়ের জন্য উপযুক্ত কন্ডিশন কাজে লাগিয়ে আলো ছড়ালেন জাসপ্রিত বুমরাহ, মোহাম্মদ শামি। নিখুঁত লাইন-লেংথে দুর্দান্ত বোলিং করে দুইশর নিচে গুঁড়িয়ে দিলেন ইংল্যান্ডের ব্যাটিং।
ট্রেন্ট ব্রিজে প্রথম টেস্টের প্রথম দিনে ইংল্যান্ডকে ১৮৩ রানে গুটিয়ে দিয়েছে ভারত। ঘরের মাঠে দলটির বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে এটাই ইংলিশদের সর্বনিম্ন সংগ্রহ। দিনের শেষ দিকে ব্যাটিংয়ে নামা ভারতের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ২১।
আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় চক্র শুরু হলো এই ম্যাচ দিয়ে। প্রথমবার রানার্স আপ হওয়া ভারতের এবারের শুরুটাও বলা যায় হলো দারুণ। এর পেছনে কৃতিত্ব দলটির পেসারদের। ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের যে দাঁড়াতেই দেয়নি তারা। দুর্দান্ত বোলিং উপহার দিয়ে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন বুমরাহ। কার্যকর বোলিংয়ে শামির প্রাপ্তি তিনটি। শার্দুল ঠাকুর দুটি ও মোহাম্মদ সিরাজের শিকার একটি।
নটিংহ্যামে বুধবার টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা ইংল্যান্ডকে শুরুতেই চেপে ধরে ভারত। ম্যাচের পঞ্চম বলেই তারা তুলে নেয় ররি বার্নসের উইকেট। বুমরাহর লেংথে পড়ে ভেতরে ঢোকা বলে এলবিডব্লিউ হয়ে রানের খাতা খোলার আগেই ফিরেন এই ওপেনার। বুমরাহ ও শামির নিখুঁত লাইন-লেংথ, সুইংয়ের বিপক্ষে ভুগছিলেন ডম সিবলি, জ্যাক ক্রলি। তবে সাবধানী ব্যাটিংয়ে প্রথম ঘণ্টায় আর দলকে বিপদে পড়তে দেননি এই দুই ব্যাটসম্যান।
বেশিক্ষণ অবশ্য স্থায়ী হয়নি তাদের প্রতিরোধ। বুমরাহ-শামির ধরে রাখা চাপ কাজে লাগিয়ে সাফল্য তুলে নেন সিরাজ। আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠা ক্রলিকে কট বিহাইন্ড করে ভাঙেন ৪২ রানের জুটি। লাঞ্চ বিরতির পর ইংল্যান্ড শিবিরে ছোবল দেন শামি। ৭০ বলে ১৮ রান করা সিবলিকে ফিরিয়ে দেন শুরু থেকে দারুণ বোলিং করে যাওয়া ভারতীয় এই পেসার।
এক প্রান্তে আস্থার সঙ্গে খেলতে থাকেন জো রুট। ইংলিশ অধিনায়ক ফিফটি তুলে নেন ৮৯ বলে। তাকে সঙ্গ দিয়ে যান দলে ফেরা জনি বেয়ারস্টো। দলের একমাত্র পঞ্চাশ ছোঁয়া জুটি আসে তাদের ব্যাটে। ১৪০ বল স্থায়ী ৭২ রানের জমে যাওয়া জুটি ভাঙে বেয়ারস্টোর বিদায়ে। চা বিরতির আগে ও পরে মিলিয়ে এক ওভারে দুই উইকেট তুলে নেন শামি। ২৯ রান করা বেয়ারস্টোকে এলবিডব্লিউ করার পর চা বিরতি থেকে ফিরে শেষ বলে ড্যান লরেন্সকে কট বিহাইন্ড করে দেন ডানহাতি এই পেসার।
থিতু হওয়ার চেষ্টায় থাকা জস বাটলারকে শূন্যতে ফিরিয়ে দেন বুমরাহ। তখনও ইংল্যান্ডের বড় ভরসা হয়ে উইকেটে ছিলেন রুট। কিন্তু এক ওভারে তাকে ও অলি রবিনসনকে বিদায় করে সেই ভরসাও ভেঙে দেন শার্দুল ঠাকুর। ১১ চারে ১০৮ বলে ৬৪ করে এলবিডব্লিউ হন রুট। এই ইনিংসের পথে একটি কীর্তি গড়েন তিনি। ইংল্যান্ডের হয়ে সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক রান করাদের তালিকার শীর্ষে থাকা অ্যালেস্টার কুককে (১৫ হাজার ৭৩৭) ছাড়িয়ে যান। রুটের রান এখন ১৫ হাজার ৭৮০।
রুটের বিদায়ের পর কিছুটা লড়াই করেন স্যাম কারান। কিন্তু সঙ্গী পাননি। এই পেস বোলিং অলরাউন্ডার অপরাজিত থাকেন ২৭ রানে। ব্যাটিংয়ে নেমে ভারতের দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুল খেলতে থাকেন আস্থার সঙ্গে। সাবধানী ব্যাটিংয়ে দলকে বিপদে পড়তে দেননি তারা। দিনের শেষ ১৩ ওভার খেলে দুইজনেই অপরাজিত ৯ রান করে।

আগস্ট ০৬
০৪:৪৭ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]