Daily Sunshine

মাঠে গালাগাল: সাব্বিরকে জরিমানা, সানীকে সতর্কতা

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ও লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের দুই খেলোয়াড় ও একজন ক্লাব কর্মকর্তার মধ্যে বাগবিতণ্ডার ঘটনা ঘটে। তাতে শাস্তি হিসেবে জরিমানা করা হয়েছে রূপগঞ্জের ক্রিকেটার সাব্বির রহমান ও শেখ জামালের ম্যানেজার সুলতান মাহমুদকে। শেখ জামালের ক্রিকেটার ইলিয়াস সানীকে সতর্ক করা হয়েছে।
বুধবার বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে শেখ জামাল ও রূপগঞ্জের ম্যাচ চলার সময় এই বিতর্কিত ঘটনা ঘটে। তা নিয়ে রিপোর্ট করা হয় ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডিএম) কাছে। তাদের টেকনিক্যাল কমিটি শুনানি আয়োজন করেন, যেখানে উপস্থিত ছিলেন সানী, সাব্বির ও সুলতান। লম্বা শুনানি শেষে সাব্বির ও সুলতানকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। আর সতর্ক করা হয়েছে সানীকে।
ঘটনা জানাতে গিয়ে ইলিয়াস সানী বলেন, ‘গত ১৩ জুন আমাদের সঙ্গে ওদের ক্লাবের খেলা ছিল। আমি ব্যাটিংয়ে নামার সময় থেকেই অকথ্য ভাষায় কথা বলতে থাকে। ক্রিকেট মাঠে স্লেজিং হয়। কিন্তু গালাগাল করা… মাঠে সেই বিষয়টি সমাধান হয়ে যায়।’ ওখানেই শেষ নয়, সানী আরও বলেন, ‘আজ বিকেএসপিতে আমি যখন ফিল্ডিং করছিলাম তখন আবার নিজ থেকে এগিয়ে এসে ঝামেলা করে। বাস থেকে নেমে আমাকে কাইল্যা, কাইল্যা বলে ডাকতে থাকে। তার সঙ্গে আমার সম্পর্ক এতটা গভীরও নয় যে এমনটা বলতে পারে। দীর্ঘদিন সেও ক্রিকেট খেলে, আমিও খেলছি। কিন্তু এরকম ডাক কখনও তার মুখ থেকে শুনিনি। এরপর ইট নিয়ে আমাকে ছুড়ে মারে। আমার গায়ে লাগেনি, কিন্তু ফিল্ডিং করছিলাম বলে আমাকে সাবধানী হওয়া দরকার ছিল। আমি আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারির কাছে অভিযোগ করি। তারা খেলা থামিয়ে রেখেছিল ২-৩ মিনিট। সাব্বিরকে বকা দিয়ে ওখান থেকে সরিয়ে দেয়।’
সানীর দাবি, পুরোনো ক্ষোভ থেকেই এমনটি করতে পারেন সাব্বির। সেদিন তারা ম্যাচ হেরেছিল। একই সঙ্গে ইলিয়াস সানীর সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়ান। সিসিডিএমে দেওয়া চিঠিতে শেখ জামাল লিখেছে, ‘শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব লিমিটেড বনাম ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাব এর মধ্যকার খেলা চলাকালে শেখ জামালের খেলোয়াড় মোহাম্মদ ইলিয়াসকে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের খেলোয়াড় সাব্বির রহমান রুম্মন মাঠের বাইরে থেকে বিনা কারণে উপর্যুপরি ইট ছুড়ে মারেন। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও উচ্চস্বরে বর্ণ বৈষম্যমূলক আচরণ করে বলেন যে, ওই কাইল্যা, কাইল্যা, কাইল্যা ইলিয়াস। যা একজন পেশাদার ক্রিকেট খেলোয়াড় হিসেবে এমন আচরণ শুধু অশোভনীয়ই নয়, শাস্তিযোগ্য অপরাধও বটে। ’
সাব্বিরের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ আসলেও তিনি অস্বীকার করেছেন। মুঠোফোনে বলেন, ‘আমি এসব সম্পর্কে কিছুই জানি না। তার সঙ্গে আমার সম্পর্ক ভালো। আমার এসব করার কোনও প্রয়োজনই নেই। আমার সঙ্গে এরকম ঘটনা ঘটেনি। তাকে কাইল্যা বলে অনেকেই ডাকে। আমারও এরকম নাম আছে। এসব হয়েই থাকে খেলোয়াড়দের মধ্যে। কিন্তু এসব নিয়ে অভিযোগ করার কী আছে?’ মাঠে ও মাঠের বাইরের বিতর্কিত ঘটনার জন্য সাব্বির এর আগেও নিষিদ্ধ হয়েছেন। খেলা চলাকালে গ্যালারিতে গিয়ে দর্শক পিটিয়ে ছয় মাস নিষিদ্ধ হয়েছেন। এবারের অপরাধও বড় অপরাধ। কিন্তু জরিমানাতে পার পেয়ে গেলেন তিনি।

জুন ১৮
০৫:৪০ ২০২১

আরও খবর

[TheChamp-FB-Comments]