Daily Sunshine

নিয়ামতপুরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে নির্যাতন

Share

নিয়ামতপুর প্রতিনিধি: নওগাঁর নিয়ামতপুরে যৌতুকের দাবিতে রাজিয়া সুলতানা (২৬) নামের এক গৃহবধূকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে শনিবার স্বামী রকিব হোসেনসহ পাঁচজনকে আসামি করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন বাবা।
ভুক্তভোগী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শ্রীমন্তপুর ইউনিয়নের হরিপুর গ্রামের মৃত মহির উদ্দিন মাস্টারের ছেলে রকিব হোসেনের সাথে দেড় বছর পূর্বে একই উপজেলার একই ইউনিয়নের একই গ্রামের আনিছার আলীর মেয়ে রাজিয়া সুলতানার বিয়ে হয়।
বিয়ের সময় রাজিয়া সুলতানার পরিবার ইতোপূর্বে যৌতুক বাবদ নগদ ২ লক্ষ টাকা দেয়া হয়। এরপর গত ৮ জুন মঙ্গলবার বেলা ১ টার সময় আরও পাঁচ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করে বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনতে বলেন ওই গৃহবধূর স্বামী।
কিন্তু রাজিয়া সুলতানা তাতে অস্বীকৃতি জানালে তার ওপর স্বামীর নির্যাতন বেড়ে যায়। এক পর্যায়ে রকিব হোসেন ও তার মা, ভাইরা বাঁশের লাঠি ও লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করে। একপর্যায়ে রাজিয়া সুলতানা জ্ঞান হারিয়ে ফেলে।
রকিব হোসেন ও তার পরিবারের সদস্যরা রাজিয়া সুলতানাকে মৃত ভেবে বাড়ীর পাশে কচু ক্ষেতে ফেলে চলে যায়। প্রতিবেশীরা জানতে পায়ে তাকে উদ্ধার করে নিয়ামতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।
ভুক্তভোগীর পিতা আনিছার আলী জানান, পাঁচ লক্ষ টাকা যৌতুকের দাবিতে জামাই রকিব হোসেন ও তার মা-দু ভাই, ভাইএর স্ত্রী আমার মেয়ে রাজিয়া সুলতানাকে বেদম মারধর করে আসছে। বাধ্য হয়ে আইনের আশ্রয় নিয়েছি আমি।
তবে অভিযুক্ত রকিব হোসেন যৌতুকের দাবি অস্বীকার করলেও স্ত্রীকে মারধর করার কথা স্বীকার করেন।
নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ন কবির জানান, অীভযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

জুন ১০
০৫:২৭ ২০২১

আরও খবর