Daily Sunshine

পাঁচ বছর পর ভাঙা ব্রিজ নির্মাণে মিললো ঠিকাদার

Share

ভোলাহাট প্রতিনিধি: টানা ৫ বছর ভেঙ্গে পড়া জনগুরুত্বপূর্ণ ব্রীজ নির্মাণে ঠিকাদার নিয়োগের খবরে খুশী সবাই। ভোলাহাট মেডিকেল মোড় হতে মহানন্দা নদী রাস্তার মুন্সিগঞ্জহাটে জনগুরুত্বপূর্ণ একটি ব্রীজ ২০১৭ সালের ১২ মে অতিরিক্ত পানির তোড়ে ভেঙ্গে যায়। ব্রিজটি নির্মাণে ছোট থেকে বড়মহলের জনপ্রতিনিধিদের ছিল নানা প্রতিশ্রুতি। কিন্তু ব্রীজটির নির্মাণ কাজ থমকে ছিল। দীর্ঘ সময়ে হুমকির মুখে পড়তে হয় মুন্সিগঞ্জ হাটের দোকান মালিকদের। একটি নতুন পোস্ট অফিস ভবন। ব্রিজের নিচে পড়ে অনেকেই দূর্ঘটনার শিকার হন। অবশেষে শান্তির নিশ্বাস পড়েছে এলাকায়। ব্রিজটি নির্মাণে ঠিকাদার নিয়োগ হয়েছে। ভোলাহাট উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী সাজিদুর ইসলাম জানান, দীর্ঘদিন ধরে ভেঙ্গে থাকা জনগুরুত্বপূর্ণ মুন্সিগঞ্জহাটের ব্রিজটি নির্মাণের কাজ দ্রুত শুরু হবে। ইতোমধ্যেই ঠিকাদার নিয়োগ হয়েছে।
ঠিকাদার নিয়োগের কথা শুনে মুন্সিগঞ্জ হাটের ক্ষুদে মুদি দোকান মালিক রইশুদ্দীন জানান, ব্রিজটি নির্মাণ হবে শুনে খুব খুশী হয়েছি। পানির তোড়ে ভেঙ্গে যাওয়া মাটির সাথে তার ছোট্ট দোকানটি হয়তো এবার রক্ষা পাবে। পরিবারের লোকজন নিয়ে আগের মত সংসার চালাতে পারবেন। রিক্সা চালক আব্দুল জানান, আগে যে ভাবে বিনোদন প্রেমীক মানুষ মহানন্দা নদীর পাড়ে এসে বাংলাদেশ থেকে ভারত দেখতে ও বিনোদন করতে রিক্সায় চড়ে আসতেন আবারো তাঁরা রিক্সায় চড়ে আসবেন। এতে করে আমার মত গরিব মানুষের আয় বাড়বে।
বজরাটেক সবজা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস শুকুর বলেন, ভাঙ্গা ব্রিজটি এ এলাকার মরণ ফাঁদ। ব্রিজটি নির্মাণে ঠিকাদার নিয়োগ হয়েছে শুনে আমি বেশ খুশী। ভেঙ্গে পড়া জনগুরুত্বপূর্ণ ব্রিজটিতে অজান্তেই নীচে পড়ে গিয়ে অনেকেই দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন।
গোহালবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের জানান, জনগুরুত্বপূর্ণ মুন্সিগঞ্জহাটের ব্রিজটি দীর্ঘদিন ভেঙ্গে থাকার পর ঠিকাদার নিয়োগ হয়েছে। নির্মাণে আমার আওতার বাইরে থাকায় নির্মাণ কাজ করতে পারিনি। ফলে জনতার কাছে নিজেকে বেশ অপরাধী মনে হতো। এখন যেহেতু ঠিকাদার নিয়োগ হয়েছে সেহেতু নির্মাণ কাজ শেষ হবে।

জুন ০৯
০৬:০৮ ২০২১

আরও খবর