Daily Sunshine

মৃত্যুর চারবছর পর সুদের দাবিতে বিধবাকে নির্যাতন

Share

মতলুব হোসেন, জয়পুরহাট: জয়পুরহাটে পাঁচবিবিতে মৃত্যুর চার বছর পর সুদের দাবিতে ঋণ গ্রহীতার বিধবা স্ত্রী ও কন্যাকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে প্রভাবশালী দাদন ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে। উপজেলার আওলাই ইউনিয়নের সুকানপুকুর গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের মেয়ে খালেদা খাতুন (২৫) এ অভিযোগ করেন।
খালেদা অভিযোগে জানান, গত শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে একই উপজেলার রহমতপুর গ্রামের দাদন ব্যবসায়ী গোলজার মন্ডল ও তার ছেলে লাবুসহ কয়েকজন মটরসাইকেল নিয়ে আমার বাবার বাড়ীতে আসেন। তারা জানান আমার বাবা জীবিত থাকাকালে তার নিকট দাদনের টাকা নিয়েছিলেন, যা সুদে আসলে ২ লক্ষ টাকা হয়েছে। আমার বাবা ৪ বছর আগেই মারা গেলেও এ ব্যাপারে আমার পরিবারের কেউ কিছু জানে না। দাবিকৃত টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় তারা আমার পরিবারের উপর অমানবিক নির্যাতন চালায়। সেসময় আমার ঘরে থাকা পঁচাত্তর হাজার, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, একভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন, কানের দুল ও আংটি কেড়ে নিয়ে যাওয়ার পথে হুমকি দিয়ে যান।
এ ব্যাপারে গোলজার হোসেন জানান, আব্দুল খালেক বেঁচে থাকতে আমার কাছ থেকে সাদা চেক রেখে ২ লক্ষ ২৬ হাজার টাকা হাওলাদ বাবদ টাকা নিয়ে তা পরিশোধ না করেই মৃত্যুবরণ করেন।
টাকার সুদ আসলে আমি ওই চেকে ৫ লক্ষ লিখে ব্যাংক থেকে উত্তোলনের জন্য গেলেও খালেকের একাউন্টে টাকা না থাকার কারণে টাকাগুলো উত্তোলন সম্ভব হয়নি। এ অবস্থায় চেকটি আমার এক আত্মীয়কে দেই। টাকাগুলো তোলার জন্য সেই আত্মীয় খালেকের বাসায় গিয়েছিল কি-না এ বিষয়ে বলতে পারব না। পাঁচবিবি থানার অফিসার ইনচার্জ পলাশ কুমার দেব জানান, এ ব্যাপারে অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জুন ০৮
০৬:৫৭ ২০২১

আরও খবর