Daily Sunshine

বাগাতিপাড়ার আদর্শ শিক্ষক সামাদ মাস্টার আর নেই

Share

বাগাতিপাড়া প্রতিনিধি: নাটোরের বাগাতিপাড়ার আদর্শবান শিক্ষক (প্রাক্তন) সামাদ মাস্টার শনিবার ভোর ৬ টায় রাজশাহীতে তার ছেলের বাসায় মারা যান (ইন্নালিল্লাহি.. রাজিউন)। ২০০৯ সালে প্রিয়তমা স্ত্রীকে হারিয়ে তাঁর ছেলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কলামিস্ট আবু সালেহ মুহাম্মদ তোহার সাথেই থাকতেন তিনি।
পরিবার সুত্রেজানা যায়, ব্যাক্তিগত জীবনে সামাদ মাস্টার ছিলেন একজন প্রাইমারী স্কুল শিক্ষক ও সংস্কৃতিকর্মী। রাজশাহী জেলার নাটোর মহকুমার বাগাতিপাড়া উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের পারকুঠি (গালিমপুর) গ্রামের এক সংস্কৃতিবান পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তার লেখাপড়ার হাতেখড়ি হয়েছিল ঐতিহ্যবাহী গালিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, তারাই চাচা ও শিক্ষক নূর মোহাম্মাদ সরকারের তত্বাবধানে।
প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করে আড়ানী মনমোহিনী উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হোন তিনি। সেখান থেকে কৃতিত্বের সাথে মেট্রিকুলেশন পাস করেন। একাধিক সরকারি চাকরিতে নিয়োগ পাওয়ার পরও তিনি শিক্ষকতাকেই পেশা হিসেবে বেছে নেন। প্রথমে তিনি সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন লালপুরের নাবীরপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এরপরে বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত ছিলেন তিনি। স্কুল পড়ুয়াদের নিয়ে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, নাটকসহ লোকসংস্কৃতির আয়োজন করতেন। ছেলেবেলা থেকেই তিনি নিজেকে শুধু শিক্ষকতার মধ্যে আবদ্ধ রাখেননি। বেশ কিছু সময় পর্যন্ত নাটক, সংগীত, ধেলাধুলাসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে নিজেকে সংশ্লিষ্ট রেখেছেন তিনি।
ছাত্রজীবনে তার নিজ গ্রামে অবস্থিত ‘গিরিশ নাট্য মন্দিরের নাট্যমঞ্চসহ বিভিন্ন স্থানে নাটকে অভিনয় ও পরিচালনা করেনে। এছাড়াও উপজেলার একজন কৃতি ফুটবলার হিসেবে বেশ সুনাম ছিল তার। পরবর্তীতে ধর্ম চর্চায় নিজে নিয়োজিত করে, বেশ কয়েকটি ইসলামিক বই প্রকাশিত করেছেন ছাত্রজীবন থেকেই তিনি। সেখানে অনুষ্ঠিত হতো নাটকসহ লোকসংস্কৃতির বিভিন্ন বিষয়। শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে তিনি অর্জন করেছেনে স্থানীয় ও জাতীয় পুরস্কার।
শিক্ষক মহল, সাংস্কৃতিক সংগঠন, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, বাগাতিপাড়া মর্ডাণ প্রেসক্লাবসহ অনেকে এ আদর্শবান মানুষটির মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত। শোক পরিবারের প্রতি জানিয়েছেন সমবেদনা। শনিবার দুপুর ২টায় জানাজা শেষে স্থানীয় কবরস্থানে প্রয়াত সামাদ মাস্টারের দাফন সম্পন্ন হয়। পাঁচ কন্যা ও এক পুত্র সন্তানসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান তিনি।

জুন ০৭
০৫:৩৬ ২০২১

আরও খবর